বিলাইছড়িতে পিসিপির কর্মী আটক, ১৫ ও ১৬ জুন উপজেলায় হরতাল

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধিঃ ‘ভূষণছড়ার ছোট হরিণা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পুন:নির্বাচনের দাবিতে জনসংহতি সমিতি রাঙ্গামাটি জেলা আহুত দুই দিনব্যাপী সড়ক ও জলপথ অবরোধ চলাকালে পিকেটিং করার সময় বিলাইছড়ি উপজেলা সদর হতে যুব সমিতি ও পিসিপি-র ৪ কর্মীকে আটক করা হয়। অবরোধের ২য় দিনে ১৪ জুন মঙ্গলবার দীঘলছড়ি সেনা জোনের ১৩ বেঙ্গলের একদল সেনা সদস্য এই নেতা-কর্মীদের আটক করে। আটকের পর উক্ত ৪ কর্মীকে বিলাইছড়ি থানায় সোপর্দ করা হয়। জনসংহতি সমিতির পাঠনো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জনগণের চাপের মুখে আটকের প্রায় দুই ঘন্টা পর পুলিশ ৩ জনকে ছেড়ে দেয়। কিন্তু পিসিপির বিলাইছড়ি উপজেলার অর্থ সম্পাদক সুনীতিময় চাকমাকে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মিথ্যা মামলা দিয়ে আটকে রাখা হয়। নেতা কর্মীদের হয়রানি ও সুনীতিময় চাকমার মুক্তির দাবিতে জনসংহতি সমিতি বিলাইছড়িতে ১৫ ও ১৬ জুন ২ দিনব্যাপী হরতাল আহ্বান করে।
ঘটনার প্রতিবাদে ১৪ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জনসংহতি সমিতি, মহিলা সমিতি, যুব সমিতি, পিসিপি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন যৌথভাবে উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিল শেষে জনসংহতি সমিতির সহ-সভাপতি চন্দ্রলাল চাকমা রাহুল এর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক সিবু চাকমার সঞ্চালনায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান শুভমঙ্গল চাকমা, জনসংহতি সমিতির বিলাইছড়ি শাখার সাধারণ সম্পাদক বীরোত্তম তঞ্চঙ্গ্যা, ১নং বিলাইছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুনীল কান্তি দেওয়ান, যুব সমিতির আলোময় তঞ্চঙ্গ্যা, পিসিপির মিলন কুসুম তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ আটককৃত সুনীতিময় চাকমার নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ১৫ জুন ও ১৬ জুন বিলাইছড়ি উপজেলায় সর্বাত্মক হরতাল পালনের ঘোষণা দেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *