নাহার খাসি পুঞ্জি বাসীদের প্রশাসন কর্তৃক উচ্ছেদ নোটিশ জারীর প্রতিবাদে মানববন্ধন

৯ জুন ২০১৬ ইং তারিখে বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ কর্তৃক শাহবাগে সিলেটের মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলাধীন নাহার খাসি পুঞ্জি বাসীদের প্রশাসন কর্তৃক উচ্ছেদ নোটিশ জারীর প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে ষড়যন্ত্রমূলক নোটিশ প্রত্যাহারের দাবিতে এক মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে বক্তারা মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের নাহার খাসি পুঞ্জি বাসীদের উপর যে উচ্ছেদ নোটিশ জারী করা হয়েছে তার তীব্র সমালোচনা করে বলেন, যুগ যুগ ধরে অত্র অঞ্চলে বসবাসরত আদিবাসীদের কথা বিবেচনা না করে প্রশাসনের এ ধরণের সিদ্ধান্ত ষড়যন্ত্রমূলক এবং ভূমি বেদখলের মত ঘৃণ্য পদক্ষেপের ইঙ্গিত বহন করে। শত বছর ধরে ঐ এলাকায় বিভিন্ন প্রতিকূলতাকে জয় করে যে ভূমিজ সন্তানদের বসবাস তাদেরকে নিজ বসতভিটা থেকে কয়েক দিনের মধ্যে উচ্ছেদ করার যে ষড়যন্ত্র প্রশাসন শুরু করেছে তা অন্যায় এবং সংবিধানের পরিপন্থী বলে বক্তারা উল্লেখ করেন। যে আদর্শের ভিত্তিতে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র গঠিত হয়েছিল সে আদর্শ আজ ভুলন্ঠিত। অনেক আদিবাসী নেতার রক্তে রঞ্জিত শ্রীমঙ্গলের খাসিপুঞ্জিগুলোকে যে কোন প্রকারে কতিপয় ভূমি অধিগ্রহণকারীদের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য বক্তারা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
সমাবেশে ঐক্য ন্যাপের সভাপতি বর্ষীয়ান জননেতা পঙ্কজ ভট্টাচার্য্য বলেন, এদেশ কখনো শাসকদের রাষ্ট্র হতে পারেনা, ভূমি দস্যুদের রাষ্ট্র হতে পারেনা। তিনি সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, খাসি পুঞ্জি রক্ষা করতে প্রয়োজনে খাসি পুঞ্জিতে গিয়ে অবস্থান করবেন। দেখবেন কিভাবে প্রশাসন খাসি পুঞ্জি থেকে আদিবাসীদের উচ্ছেদ করে।
বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং বলেন, বন ও ভূমির সাথে আদিবাসীদের জীবন ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বন, ভূমি ছাড়া আদিবাসীদের অস্তিত্ব টিকে থাকতে পারেনা।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক মেজবাহ কামাল বলেন, যুগ যুগ ধরে অত্র এলাকায় বসবাসরত আদিবাসীদের ভূমি ব্যবহার করার ক্ষেত্রে বংশগত, ন্যায়সঙ্গত অধিকার রয়েছে। খাসি পুঞ্জের আদিবাসীরা বংশানুক্রমিকভাবে ঐ এলাকায় পান চাষ করে আসছে। এমতাবস্থায়, কাগুজে দলিলের দোহায় দিয়ে সে জমিগুলোর অধিগ্রহণ কখনো ন্যায়সঙ্গত হতে পারেনা।
সমাবেশে সংগঠনটির সহ-সাধারণ সম্পাদক অমর শান্তি চাকমার সঞ্চালনায় সংহতি জানিয়ে আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্কের যুগ্ম-আহ্বায়ক চৈতালী ত্রিপুরা, কাপেং ফাউন্ডেশনের হিরণ মিত্র চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের ঢাকা মহানগর শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিবিকাশ চাকমা, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠনের ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি অলিক মৃ, খাসিয়া ছাত্র সংগঠনের ওয়ানলি আমসে, বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জোনাথন চাম্বুগং এবং মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি সুমন মারমা।
মানববন্ধন থেকে নিম্নোক্ত দাবীনামা উত্থাপন করা হয়-
১। অনতিবিলম্বে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলাধীন নাহার খাসি পুঞ্জি বাসীদের প্রশাসন কর্তৃক ষড়যন্ত্রমূলক উচ্ছেদ নোটিশ প্রত্যাহার করতে হবে।
২। সমতলের আদিবাসীদের জন্য পৃথক ভূমি কমিশন গঠন করতে হবে।
৩। পার্বত্য চুক্তির যথাযথ বাস্তবায়নসহ আদিবাসীদের উপড় নিপীড়ন-অত্যাচার, ভূমি অধিগ্রহণ বন্ধ করতে হবে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.