আমাজন অনুসন্ধান আটকে গেল ব্রাজিল সরকারের

বিশাল আমাজনের একটি এলাকায় খনিজ অনুসন্ধানের জন্য যে পদক্ষেপ নিয়েছিল ব্রাজিল সরকার; আদালতের এক আদেশে তা ভেস্তে গেছে।
পরিবেশবাদীদের প্রবল আপত্তি উপেক্ষা করে ব্রাজিলের সরকার খনিজ অনুসন্ধানে আমাজন বনাঞ্চলের বিশাল একটি এলাকা সংরক্ষণের আওতা থেকে মুক্ত করতে ডিক্রি জারি করেছিল গত সপ্তাহে।

দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্য আমাপা ও পারার মধ্যবর্তী ৪৬ হাজার বর্গকিলোমিটার এই এলাকাটি সোনা, ম্যাঙ্গানিজসহ অন্যান্য খনিজে সমৃদ্ধ বলে ধারণা রয়েছে।

সমালোচনার মুখে সোমবার সরকার আগের জারি করা ডিক্রিতে কিছু পরিবর্তন এনেছিল। তাতে সংরক্ষিত ও আদিবাসীদের আবাস এলাকাগুলোতে খনিজ অনুসন্ধান না করার কথা বলা হয়।

কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি। পরিবেশবাদীদের আপত্তিতে বুধবার ব্রাজিলের ফেডারেল আদালত সরকারের ওই ডিক্রির কার্যকারিতা স্থগিত করে দেয় বলে বিবিসি জানিয়েছে।

আদালত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট মিশেল তেমেরের জারি করা ডিক্রিবলে আমাজানের ওই এলাকায় সরকারের নেওয়া সম্ভাব্য সব ধরনের প্রশাসনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হল। আয়তনে এলাকাটি ডেনমার্কের চেয়েও বড় এবং এর ৩০ শতাংশ খনি অনুসন্ধানের জন্য উন্মুক্ত করতে চাইছিল ব্রাজিল সরকার।

ব্রাজিলের খনি ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় বলেছিল, নতুন বিনিয়োগ আকর্ষণ, দেশের জন্য সম্পদ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং সমাজের আয় বাড়ানোর উদ্দেশ্যেই এ পদক্ষেপ। তবে পরিবেশবাদীরাসহ সরকাবিরোধীরাও এই পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করে। আমাপা রাজ্যের সিনেটর রেনদল্ফ রদ্রিগেজ বলেন, “এটি গত অর্ধশতকে আমাজনের উপর হওয়া সবচেয়ে বড় আঘাত।”

এর আগে গত মাসে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ফান্ড ফর নেচার (ডব্লিউডব্লিউএফ) ব্রাজিলের সংরক্ষণ বিষয়ক দলের প্রধান সতর্ক করে বলেছিলেন, খনির জন্য উন্মুক্ত করা হলে ওই এলাকায় জনসংখ্যার বিস্ফোরণ ঘটবে, মরুকরণ হবে, ক্ষতি হবে পানি সম্পদের; জীববৈচিত্র্য নষ্ট হবে এবং ভূমি নিয়ে সংঘাত বাড়বে।

৫৫ লাখ বর্গমাইল আয়তনের আমাজন বনাঞ্চলে ১৬ হাজার প্রজাতির উদ্ভিদ রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। বিশ্বের সর্ববৃহৎ এই রেইনফরেস্টে ২৫ লাখ প্রজাতির কীটপতঙ্গ, দেড় হাজার প্রজাতির পাখি ও প্রায় ৫০০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণীর বাস।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *