“সংরক্ষিত বনভূমি” ঘোষণার প্রতিবাদে মানববন্ধন

আইপিনিউজ ডেস্কঃ “সংরক্ষিত বনভূমি” ঘোষণার প্রতিবাদে আজ ২০ মে সকাল ১০ টায় ঢাকার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে গারো স্টুডেন্ট ইউনিয়ন (গাসু)।

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ পরিবেশ ও বন মন্ত্রনালয় কর্তৃক টাঙ্গাইল জেলাধীন মধুপুর গড়াঞ্চলের অরণখোলা ইউনিয়নের ৯,১৪৫.০৭ একর জমিকে ১৯২৭ সালের বন আইনের (The forest act, 1927) (Act XVI of 1927) ২০ ধারা ক্ষমতাবলে “সংরক্ষিত বনভূমি” ঘোষণা করা হয়েছে। জারি হয়েছে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনও, এতে বলা হয়েছে, ঘোষিত বনভূমি এলাকায় কারো কোন দাবি-দাওয়া উপস্থাপিত হয়নি , তবে কয়েকটি দাবি-দাওয়া থাকলেও তা আইনগত ভাবে নিষ্পত্তি হয়ে গেছে।
2

আদিবাসীদের অজান্তেই সংরক্ষিত বনভূমি কাযর্ক্রমটি পরিচালিত হচ্ছে দাবী করে গাসুর সাধারণ সম্পাদক বিপুল চিরান বলেন, আদিবাসীরাই জানেন বনভূমিকে কিভাবে ভালোবাসতে হয়। অথচ যেখানে যুগযুগ ধরে বসবাস করছি সেখান থেকে আমাদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে। সরকার কোনো আলোচনা ছাড়া আমাদের উচ্ছেদ করলে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।
তিনি আরো বলেন, এর আগে মধুপুরে ইকোপার্ক তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। আদিবাসীদের রক্তাক্ত আন্দোলনে তা থেমে গিয়েছিল। সেসময় বনরক্ষীর গুলিতে নিহত হন পীরেন স্নাল, চলেশ রিছিল ও পঙ্গুত্ব বরণ করেন উৎপল নকরেক। মধুপুর থেকে আমাদের উচ্ছেদ করলে আবারও একই ঘটনা ঘটবে।
মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন,প্রফেসর ড. মেসবাহ কামাল, মৌলিক বাংলার জাহিদ জগত, গারো স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সভাপতি ডেনী দ্রংসহ আদিবাসী নেতাসহ আরো অনেকে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *