নজিরবিহীন বন্যার কবলে যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টন

টেক্সাসের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ঝড়ের মোকাবিলা করছে হিউস্টন সিটি। হারিকেন হার্ভের প্রভাবে সেখানে ৭৫ সেন্টিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। পানিতে ডুবে গেছে সড়ক মহাসড়ক। ধারণা করা হচ্ছে সেখানে এক সপ্তাহে যে বৃষ্টি হচ্ছে তা অন্য সময়ের এক বছরের বৃষ্টির সমান। ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বাড়ির ছাদ থেকে অনেককে হেলিকপ্টার দিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় উদ্ধারকারীদের প্রবল বেগ পেতে হচ্ছে। চতুর্থ ক্যাটাগরির হারিকেনটি শুক্রবারের শেষভাগে দুর্বল হয়ে মৌসুমী ঝড়ে পরিণত হয়। হিউস্টন এবং এর আশেপাশে থেকে ২ হাজার মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের চতুর্থ বৃহত্তম শহরটিতে ৬৬ লক্ষ মানুষের বসবাস। যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে নজিরবিহীন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। হিউস্টনে বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। হাজার হাজার বাড়িতে বিদ্যুত্ নেই। অনেক স্কুল বন্ধ রয়েছে। প্রধান দুটি বিমানবন্দরের রানওয়ে পানিতে তলিয়ে গেছে। কাছাকাছি এলাকায় ভ্রমণ করাও অসম্ভব ব্যাপার হয়ে পড়েছে।

মৌসুমী ঝড় হার্ভের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। বৃষ্টির কারণে হাউস্টনে ভয়াবহ বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যার পানিতে শহরের রাজপথগুলো যেন নদীতে পরিণত হয়েছে। একটি কনভেনশন সেন্টারসহ অনেকগুলো জায়গায় আশ্রয় কেন্দ্রও খোলা হয়েছে। আশঙ্কাজনক পরিস্থিতিতে না থাকলে জরুরি সেবা বিভাগকে না ডাকার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন হিউস্টনের মেয়র সিলভেস্টার টার্নার। জনগণকে সাবধানে চলাফেরা করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা রাস্তায় নেমে আসবেন না। ভাববেন না ঝড় শেষ হয়ে গেছে।’

এদিকে বন্যার পানিতে গাড়িতে মরদেহ থাকতে পারে বলে ধারণা করা হলেও কাউন্টি শেরিফের কার্যালয় এ ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট জানান, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই ১৯টি কাউন্টির জন্যে ফেডারেল দুর্যোগ ঘোষণা করা হয়েছে। টেক্সাসের অন্তত আড়াইশোটি সড়ক ও মোটর যোগাযোগের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান অ্যাবট। যাদের নৌকা আছে তাদেরকে উদ্ধার তত্পরতায় যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন হারিস কাউন্টির কর্মকর্তারা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আজ মঙ্গলবার টেক্সাস পরিদর্শনে যাবেন বলেও জানানো হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *