বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু জুম্ম শিক্ষার্থীদের জন্য পরামর্শমূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত

১৯ আগস্ট শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলস্থ অক্টোবর টিভি রুমে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম্ম শিক্ষার্থী পরিবারের যৌথ উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু জুম্ম শিক্ষার্থীদের জন্য এক পরামর্শমূলক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম বর্ষের মেধাবী শিক্ষার্থী সতেজ চাকমার সঞ্চালনায় এবং মাস্টার্সের শিক্ষার্থী নিউটন চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য প্রদান করা হয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের “ক” ইউনিট অর্থাৎ বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোকপাত করেন ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী ক্লিনটন চাকমা এবং শোভা চাকমা। “খ” ইউনিট অর্থাৎ মানবিক বিভাগ নিয়ে আলোচনা করেন ১ম বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী নবাংশু চাকমা। “গ” এবং “ঘ” ইউনিট অর্থাৎ ব্যবসায় শিক্ষা এবং সম্মিলিত বিভাগ নিয়ে আলোচনা করেন যথাক্রমে প্রনব চাকমা এবং টরা তংচঙ্গ্যা । এছাড়াও “চ” ইউনিট অর্থাৎ চারুকলা বিষয়ে আলোকপাত করেন ১ম বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী জুলি বম।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির নিয়মাবলী, ইউনিট ভিত্তিক প্রশ্নের ধরণ, কোটা সিট প্রভৃতি বিষয়ে ধারণা দেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী প্রিভেন্টি চাকমা। রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন সরল তংচঙ্গ্যা। এছাড়াও ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিষয়ে আলোকপাত করেন বুয়েটের শিক্ষার্থী পিযুষ চাকমা প্রমুখ।
আলোচনার মাঝখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম্ম শিক্ষার্থী পরিবারের সহপাঠমূলক সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে ধুদুক দেওয়ানের একটি ডকুমেন্টারীও প্রদর্শন করানো হয়।
“চেতনায় অবিরাম শেকড়ের টান” এ স্লোগানে অনুষ্ঠিততব্য অনুষ্ঠানে আলোচনার পাশাপাশি অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রুনি চাকমা, ধুদুক দেওয়ান, নিশৈমং মারমা ও নিপন ত্রিপুরা। এছাড়াও সংহতি জানিয়ে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য রাখেন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি অমর শান্তি চাকমা এবং পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি ছাত্রনেতা সুপেন চাকমা প্রমুখ।
বক্তারা পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম্ম শিক্ষার্থী পরিবারের যৌথ এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের অন্ধকারাচ্ছন্ন সমাজব্যবস্থাকে বদলে দেওয়ার জন্য উচ্চশিক্ষার বিকল্প নেই। জুম্ম আদিবাসী ছাত্র ছাত্রীরা উচ্চশিক্ষা অর্জনের মধ্যে দিয়ে জুম পাহাড়ের চিরাচরিত নান্দনিকতাকে ফিরিয়ে আনার কাজে নেমে পড়বে। বক্তারা নিজস্ব অভিজ্ঞতার আলোকে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন দিক সম্পর্কে আলোচনা করেন। বক্তারা বলেন, প্রতিটি সফলতার পেছনে হাজারো সংগ্রামের ইতিহাস রয়েছে। জীবনে সফলতা পেতে গেলে পরিশ্রমের বিকল্প নেই। অক্লান্ত অধ্যাবসায়ই একজন শিক্ষার্থীকে তার নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছিয়ে দিতে পারে। বক্তারা সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে ধৈর্য্যসহকারে পড়াশুনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য আগত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পরামর্শ প্রদান করেন। এছাড়াও ভবিষ্যতে আরো অধিক সংখ্যক জুম্ম শিক্ষার্থী দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রায় ৬০ জনের অধিক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের প্রানবন্ত অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিততব্য বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য পরামর্শমূলক সেমিনার সভাপতির বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *