তিন দফা দাবিতে রাবির আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

আদিবাসী হিসেবে সাংবিধানিক স্বীকৃতিসহ তিন দফা দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মানববন্ধন করেছে আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাবি শাখা ও রাজশাহী মহানগর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ। সোমবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হয়। তাদের অন্য দুইটি দাবি হলো- পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন ও সমতল আদিবাসীদের জন্য স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠন।

মানববন্ধনে আদিবাসী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি নকুল পাহান বলেন, ‘পাহাড়ী আদিবাসীদের উপর বিভিন্নভাবে বৈষম্য নিপীড়ন করা হচ্ছে। তাদের বাড়ি-ঘরে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাদের ধর্ষণ করা হচ্ছে। আদিবাসীরা রাস্তায় বের হতে পারে না। সবসময় তাদের মধ্যে শঙ্কা কাজ করে। বাংলাদেশ সরকারকে বলতে চাই, বাংলাদেশে যে জাতীয় শিক্ষানীতি, নারী উন্নয়ন নীতি রয়েছে তাতে আদিবাসীদের অধিকারের কথা রয়েছে। কিন্তু সেটা আদৌ বাস্তবায়িত হবে কিনা তাতে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। ’

এসময় পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের রাজশাহী মহানগরের সভাপতি দীপেন চাকমা বলেন, ‘বাংলাদেশে ১৯৯৭ সালে ২ ডিসেম্বর ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিটির সঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। কিন্তু আজকে ২০ বছর অতিবাহিত হওয়ার পরেও পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি পুরোপুরি বাস্তবায়িত হচ্ছে না। চুক্তির মৌলিক বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নেই। ’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের বাদ দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে না। আমাদেরকেও ডিজিটালে সম্পৃক্ত করতে হবে। এছাড়া হাজারো মানুষের জীবনের বিনিময়ে যে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি হয়েছিল, সেটি বাস্তবায়নে যদি আবারো হাজারো মানুষকে জীবন দিতে হয় তবে আদিবাসীরা প্রস্তুত রয়েছে। যেকোনো কিছুর বিনিময়ে আমরা এর বাস্তবায়ন দেখতে চাই। ’

মানববন্ধনে পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক দীপনের সঞ্চালনায় অন্যদের মাঝে বক্তব্য দেন আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক তরুণ মুণ্ডা, রাজশাহী মহানগরের তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মংখেউ, রাবি ছাত্র মৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক দিলিপ রায়, ছাত্র ফেডারেশনের রাবি শাখার সভাপতি কিংশুক কিঞ্জল, রাবি কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আব্দুল মজিদ অন্তর প্রমুখ। এসময় শতাধিক পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *