বিশ্বজুড়ে বড় ধরণের সাইবার হামলা

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ‘র‌্যানসমওয়্যার’ ছড়িয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনেক প্রতিষ্ঠানের নেটওয়ার্ক অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবারের এই সাইবার হামলায় রাশিয়ার সবচেয়ে বড় তেল কোম্পানি ও দেশটির বিভিন্ন ব্যাংক, ইউক্রেইনের রাজধানী কিয়েভের প্রধান বিমানবন্দর এবং খ্যাতনামা ডেনিশ শিপিং ফার্ম এ পি মোলা-ম্যার্স্ক’র নেটওয়ার্ক আক্রান্ত হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

ইউক্রেইনের রাষ্ট্রীয় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানসহ আরও কিছু কোম্পানিতে সাইবার হামলার খবর পাওয়া গেছে।

কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেম উইনডোজ-বেজড সেন্সরগুলো অচল হয়ে পড়ায় চেরেনোবিল পররমাণু কেন্দ্রে তেজস্ক্রিয়ার মাত্রা ‘ম্যানুয়ালি’ মনিটর করতে হয় বলে এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এতে বলা হয়, এই সাইবার হামলার কারণে ব্রিটিশ বিজ্ঞাপনী সংস্থা ডব্লিউপিপি তাদের আইটি সিস্টেমে বিঘ্ন ঘটার কথা জানিয়েছে।

রুশ সাইবারসিকিউরিটি ফার্ম ক্যাসপারেস্কি ল্যাব পোল্যান্ড, ইতালি, জার্মানি, ফ্রান্স ও যুক্তরাষ্ট্রেও সাইবার হামলা শনাক্ত করার কথা জানিয়েছে।

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত মে মাসে ‘ওয়ানাক্রাই’ নামের ম্যালওয়্যারের মাধ্যমে শতাধিক দেশে যে সাইবার হামলা চালানো হয়েছিল, সেই নিরাপত্তা ঘাটতিকে এবারও কাজে লাগানো হয়েছে।

র‌্যানসমওয়্যার

র‌্যানসমওয়্যার হল এক ধরনের ম্যালওয়্যার যা কম্পিউটারের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর ব্যবহারকারীর কাজে বাধা দেয় এবং অনেক সময় হার্ড ড্রাইভের তথ্য একটি নির্দিষ্ট পাসওয়ার্ড দিয়ে এনক্রিপ্ট করে ফেলে।

এর ফলে ব্যবহারকারী ওই কম্পিউটার ব্যবহার করতে গেলে তার কাছে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মুক্তিপণ বা অর্থ দাবি করা হয়।

এ ধরনের ম্যালওয়্যার কম্পিউটার ওয়ার্ম বা ট্রোজান ভাইরাসের মত নেটওয়ার্কের মাধ্যমে এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

জোসেফ পোপ নামের এক হ্যাকার ১৯৮৯ সালে প্রথমবারের মত র‌্যানসমওয়্যার তৈরি করেন যা ‘এইডস’ বা ‘পিসি সাইবর্গ’ নামে পরিচিতি পায়। ২০১৩ সালে র‌্যানসমওয়্যার ব্যবহার করে বিটকয়েন অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে অর্থ আদায়ের বেশ কিছু ঘটনার খবর আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে আসে।

সিকিউরিটি ফার্ম রেকোর্ডেড ফিউচার’র মুখপাত্র আন্দ্রেই ব্যারিসেভিচ বলেন, গত এক বছরে অনেক ফোরামে তারা এই ম্যালওয়্যার বিক্রির জন্য রাখতে দেখেছেন।

“এসব ফোরামে এর দাম রাখা হয় মাত্র ২৮ ডলার। তবে আমরা নিশ্চিত নই যে, তারা এর সর্বশেষ সংস্করণ না কি এর কোনো নতুন রূপ ব্যবহার করেছেন।”

ব্যারিসেভিচ বলেন, সাইবার-চোরেরা এটাকে খুব লোভনীয় দেখছে বলে হামলা থামছে না। একটি দক্ষিণ কোরীয় হোস্টিং কোম্পানি নিজেদের ডেটা ফিরে পেতে ১০ লাখ ডলার দিয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই র‌্যানসমওয়্যারে যেসব বিটকয়েন ওয়ালেটে মুক্তিপণের টাকা জমা দিতে বলা হয়েছে, সেসব ওয়ালেটে মোটা টাকা জমা পড়ার খবর আসছে।
তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *