কক্সবাজারে রাখাইনদের দোকান দখল

কক্সবাজার শহরের চাউলবাজার এলাকায় সংখ্যালঘু পরিবারের দোকানঘর জবরদখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার ১১জুন বিকাল ৪টার দিকে দখলের ঘটনাটি ঘটে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

দোকানঘর মালিক মাউনটিন কক্সবাজার মডেল হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষিকা। স্বামী উথুইং যাই চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষক। বিরোধীয় জায়গা নিয়ে কক্সবাজার সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা রয়েছে। মামলা নং-অপর ১২৫/২০১২।

মাউনটিন অভিযোগ করেন, আমার শ্বাশুড়ী মাখিন ম্যা মঘিনী ১৯৯১ সালে আমার স্বামীকে তার নামীয় বিএস খতিয়ান ৪৯২৮, বিএস দাগ ৬৬০২ ভুক্ত .০২২৫ একর জমি মৌখিকভাবে দান করেন। ১৯৮২ সাল থেকে আমরা স্বপরিবারে এই জমিতে বসবাস করে আসছি। এলাকার আবদুল জব্বার মুন্সির ছেলে আব্দুল ওয়াহেদ রাশেদ, আব্দুল ওয়াজেদ খোকা, আব্দুল ওয়াসিম অভিসহ একদল দখলবাজ দিনদুপুরে দোকানের তালা ভেঙে দখল করে নেয়। বাঁধা দিতে গেলে আমাদের প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। জমির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়া এবং আমরা সংখ্যালঘু হওয়ায় দূর্বলতার সুযোগ নিয়েছে দখলবাজরা।

এলাকাবাসী জানায়, আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় কমান্ডো স্টাইলে দখল করা আদালতের অবমাননার শামিল। যারা আদালতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবী স্থানীয়দের।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি রনজিত বড়–য়া জানান, খবর পেয়ে সরেজমিন খোঁজ খবর নেয়া হয়েছে। দোকানঘর নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। একটি পক্ষ দোকান তাদের দাবী করেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। রাত ৮ টায় উভয়পক্ষকে থানায় ডাকা হয়েছে। ডকুমেন্ট পর্যালোচনা করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *