খাগড়াছড়িতে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের মিছিলে বিজিবি-পুলিশের হামলাঃ আটক ২১

খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভরে কল্পনা চাকমা’র অপহরণকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে হিল উইমেন্স ফেডারেশন আয়োজিত শান্তিপূর্ণ মিছিলে বিজিবি-পুলিশ যৌথভাবে হামলা চালিয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। গণ ধরপাকড় চালিয়ে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেতা-কর্মীসহ কমপক্ষে ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে ২১ জনকে আটকের কথা স্বীকার করা হয়েছে।
আজ বুধবার (৭ জুন) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হিল উইমেন্স ফেডারেশন-এর খাগড়াছড়ি জেলা শাখার উদ্যোগে কল্পনা চাকমা’র চিহ্নিত অপহরণকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়ি সদরের স্বনির্ভর বাজারে এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বিক্ষোভ মিছিল শান্তিপূর্ণভাবে চলছিল। কিন্তু এক পর্যায়ে পুলিশ ও বিজিবি বিনা উস্কানীতে মিছিলে বাধা দেয়, ব্যানার কেড়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়। তারা মিছিলে আগত নারীদের উপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলে পড়ে এবং বর্বরতম ও পাশবিক উপায়ে ভব্যতার কোনো মাত্রা বজায় না রেখে নারীদের মারধর করতে থাকে। নারীরা দিকবিদিক পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে পুলিশ ও বিজিবির’র পুরুষ সদস্যরা লাঠিসোটা নিয়ে তাদের ধাওয়া করে। হামলাকারী বিজিবি-পুলিশ সদস্যরা স্বনির্ভর বাজারের দোকানপাট ও পার্শ্ববর্তী খবংপয্যা গ্রামে ঢুকে বিভিন্ন জনের বাড়ি তল্লাশি চালিয়ে গণ ধরপাকড় চালায়। এতে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সংগঠনের কর্মী-সমর্থকসহ প্রায় ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে আটকের প্রকৃত সংখ্যা কম-বেশিও হতে পারে।
উক্ত হামলার ঘটনার পর বিজিবি-পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা স্বনির্ভর ও আশে-পাশের এলাকায় মারমুখি অবস্থান নেয়। এ সময় লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। স্বনির্ভর বাজারের সমস্ত দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়।
বিকাল ৪টায় আটককৃতদের মধ্য থেকে ১৩ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
এদিকে, শান্তিপূর্ণ মিছিলে এই হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মী ও জনতা খাগড়াছড়ি জেলার বিভিন্ন স্থানে তাৎক্ষণিকভাবে রাস্তা অবরোধ এর প্রতিবাদ জানায়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *