লংগদুর ঘটনা পরিদর্শন করছে ১৪ দল: মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত কমিটি গঠন

রাঙামাটির লংগদুতে পাহাড়িদের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি আগামী চার দিনের মধ্যে ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেবে।

কমিটিতে জাতীয় মানবধিকার কমিশনের সদস্য ও রাঙামাটি সরকারি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর বাঞ্ছিতা চাকমাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে। সদস্য সচিব করা হয়েছে ঢাকার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সহকারী পরিচালক সাজ্জাদুর রহমান এবং সদস্য করা হয়েছে কমিশনের রাঙামাটির আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপপরিচালক গাজী সালাহ উদ্দীনকে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার পুলিশ আরও তিনজনকে আটক করেছে। এ পর্যন্ত এ ঘটনায় ১৬ জন আটক হলো।

এদিকে, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপির নেতৃত্বে ১৪ দলের একটি কমিটি আজ বুধবার লংগদুতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকালে তারা ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িদের সঙ্গে কথা বলেন।
গত বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি জেলার খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের চার মাইলের যৌথ খামার এলাকা থেকে রাঙামাটির লংগদু উপজেলা সদর ইউনিয়ন শাখা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ভাড়ায়চালিত মোটরবাইক চালক নুরুল ইসলাম নয়নের লাশ উদ্ধার হয়। ওই দিন তিনি মোটরসাইকেলে যাত্রী নিয়ে লংগদু থেকে খাগড়াছড়ি যান। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বাঙালিরা পাহাড়িদের দায়ী করেন। পরদিন স্থানীয় বাঙালিরা নয়নের লাশ নিয়ে লংগদু সদরে মিছিল বের করলে সেখান থেকে তিনটিলা, পূর্ব ও পশ্চিম মানিকজোড় ছড়া এবং বাত্যাপাড়া গ্রামে হামলা, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। এতে প্রায় আড়াইশ’ ঘরবাড়ি আগুনে পুড়ে যায়। তবে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অগ্নিকাণ্ডে ২১২টি ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্তের তালিকা করা হয়েছে।

এদিকে, মঙ্গলবারও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়িরা তাদের ভিটেমাটিতে ফেরেননি এবং সরকারের দেওয়া ত্রাণ সহায়তা গ্রহণ করেননি। তবে লংগদুর তিনটিলা বৌদ্ধ বিহারে আশ্রয় নেওয়া ক্ষতিগ্রস্তদের মঙ্গলবার চিকিৎসা দিয়েছে রেড ক্রিসেন্ট। ক্ষতিগ্রস্তদের নিরাপত্তা দিতে পুলিশ প্রশাসন থেকে মানিকজোড় পাড়া এলাকায় মঙ্গলবার একটি অস্থায়ী ক্যাম্প বসানো হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *