‘মোরা’র তাণ্ডবে বিধ্বস্ত ঘরবাড়ি, শিশুসহ নিহত ৪

ঘূর্ণিঝড় মোরার আঘাতে উপড়ে গেছে বহু গাছপালা বিধ্বস্ত হয়েছে শতশত বাড়িঘর। ঘূর্ণিঝড় চলাকালীন উখিয়ায় গাছের নিচে চাপা পড়ে একজনের মৃত্যু ও একটি আশ্রয় কেন্দ্রে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে ভোলায় মায়ের কোল থেকে নদীতে পড়ে একটি শিশুর মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। ঝড়ের প্রভাবে উপকূলীয় এলাকায় ভেঙ্গে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটারের বেশি গতির বাতাস নিয়ে মঙ্গলবার সকালে দিকে কুতুবদিয়ার কাছ দিয়ে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম শুরু করে ঘূর্ণিঝড়টি।

ভোর ৬টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ সেন্টমার্টিনে আঘাত হানে জানিয়ে সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নূর আহম্মদ বলেন, এখানে এখন প্রচণ্ড- ঝড়ো বাতাসের সঙ্গে মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

কক্সবাজারের উপকূলীয় এলাকা টেকনাফ, সেন্টমার্টিন, কক্সবাজার শহর, মহেশখালী, শাহপরীর দ্বীপ ও কুতুবদিয়ায় বহু বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়ায় উড়ে গেছে অনেক বাড়িঘরের টিনের চাল। উপড়ে পড়েছে প্রচুর সংখ্যক গাছপালা।

এছাড়া রাঙামাটিতে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ বৃহত্তর চট্টগ্রামের ওপর দিয়ে ১৩৫ কি.মি বেগে অতিক্রম করার সময় এর প্রভাব পড়েছে রাঙামাটিতেও।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *