গৌতম বুদ্ধ ও বৌদ্ধধর্ম নিয়ে গণমাধ্যমে অবমাননাকর প্রতিবেদনে নিন্দা

গৌতম বুদ্ধ ও বৌদ্ধধর্ম নিয়ে গণমাধ্যমে অবমাননাকর প্রতিবেদন প্রকাশের নিন্দা জানিয়ে বৌদ্ধ ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও পুরাকীর্তি সংরক্ষণ পরিষদ সংবাদ সম্মেলন করেছে। সংবাদ সম্মেলেনে বৌদ্ধদের বিরুদ্ধে সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের খেপিয়ে তুলতে প্রতিবেদনগুলো লেখা হয়েছে এবং পাহাড়ি এলাকায় সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দিতে এটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র বলে দাবী করা হয়।
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে গত ২২ মে রোববার বিকেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলা হয়। সংগঠনটির সভাপতি প্রজ্ঞানন্দ ভিক্ষু লিখিত বক্তব্যে বলেন, কয়েকটি জাতীয় ও অনলাইন পত্রিকা বৌদ্ধধর্ম, এর প্রবর্তক গৌতম বুদ্ধ ও বৌদ্ধ ভিক্ষুদের নিয়ে কুৎসাপূর্ণ প্রতিবেদন প্রকাশ করে চলেছে। ২৪ এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে গৌতম বুদ্ধকে ‘সন্ত্রাসী’ বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে। বৌদ্ধবিহার ও ভাবনাকেন্দ্রে অস্ত্র প্রশিক্ষণের অভিযোগ তুলে প্রতিবেদনে মুসলমানদের এর ‘প্রধান টার্গেট’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। মিয়ানমারের সন্ত্রাসী দলগুলোর সঙ্গে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের যোগাযোগ থাকার দাবিও করা হচ্ছে।
প্রজ্ঞানন্দ আরও বলেন, এসব প্রতিবেদনকে ঘিরে সাধারণ বৌদ্ধ জনগোষ্ঠীর মধ্যে ক্ষোভ ও আক্রমণের আশঙ্কা বিরাজ করছে। প্রতিবেদনগুলোতে সুনির্দিষ্ট সূত্র ব্যবহার হয়নি বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বক্তব্য কোনো প্রতিবেদনে ছিল না।
অনুষ্ঠানে সংগঠনের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট গণমাধ্যমগুলোর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন কলামিস্ট রেহনুমা আহমেদ, আলোকচিত্রী শহীদুল আলম, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের (বাসদ) নেতা শামসুন্নাহার জ্যোৎস্না প্রমুখ।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *