অবরোধ পালিত হয়েছে; ২৫ এপ্রিল ডিসি অফিসের সামনে অবস্থান ধর্মঘট

রাঙামাটি: সেনাবাহিনীর হেফাজতে রাঙামাটি নানিয়াচর সরকারী কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী রমেল চাকমার মৃত্যুর প্রতিবাদ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির দাবীতে আজ রবিবার রাঙামাটি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা সড়ক, নৌ পথ অবরোধ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
অবরোধের দিন রাঙামাটি-চট্টগ্রাম মহাসড়ক এবং রাঙামাটি- খাগড়াছড়ি জেলা সড়কে বিভিন্ন অংশে গাছের গুড়ি ফেলে দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় অবরোধকারীরা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়ন ছিল। কয়েকটি যান পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর প্রটোকল নিয়ে রাঙামাটি শহরে প্রবেশ এবং শহর থেকে বের হয়েছে। নৌ যান চলাচলও বন্ধ ছিল।
এদিকে রমেল মৃত্যুর ঘটনায় নানিয়াচর থানায় গতকাল রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।
থানার ওসি সাংবাদিকদের বলেন, এখনও কেউ অভিযোগ দিতে আসেনি। ভুক্তভোগী পরিবারকে থানায় অভিযোগ দিতে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে খবর পাঠিয়েছি। তিনি বলেন, অভিযোগ আসলে পুলিশ মামলা নেবে।
রমেল চাকমার প্রতিবাদের কর্মসূচির অংশ হিসেবে আগামী মঙ্গলবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মুখে অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করা হবে। সংশ্লিষ্ট এক নেতা বলেন এ অবস্থান কর্মসূচি থেকে আরো নতুন কর্মসূচি দেওয়া হতে পারে। আগামী ২৬ এপ্রিল নানিয়াচর হাট বাজার বয়কট কর্মসূচি পালন করবে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও রমেল হত্যার প্রতিবাদ কমিটি।
উল্লেখ্য গত ৫ এপ্রিল রাঙামাটির নানিয়াচর সরকারী কলেজে এইচএসসি পরীক্ষার্থী রমেল চাকমাকে আটক করে নিরাপত্তা বাহিনী। আটকের পর তিনি অসুস্থ হলে সেদিন রাতে নানিয়াচর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করতে গেলে পুলিশ রমেলকে গ্রহণ না করে চিকিৎসার পরামর্শ দিলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৯ এপ্রিল মারা যায়। পরে রমেলের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর না করে নিরাপত্তা বাহিনীর তত্বাবধানে ২১ এপ্রিল পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে ফেলা হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.