বাবেলাকোনা আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ ও বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

কাঞ্চন মারাক : শেরপুরের সীমান্তবর্তী শ্রীবরদী উপজেলাধীন বাবেলাকোনা আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীন বরণ ও এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১৬ জুন (বুধবার) বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গন নানা আয়োজনে ছিলো মূখরিত। গান-নাচ ও আলোচনা অনুষ্ঠানের শেষে দিনভর চলে মনোজ্ঞ সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও এতে উপস্থিত ছিলেন আশপাশের এলাকার সর্বসাধারণ।

অনুষ্ঠান দেখতে এসে দর্শক সাড়ি থেকে বয়োজৈষ্ঠ মুরব্বি আশাকিন ম্রং বলেন, “ইস্কুলের উনুস্থান মানেই আলাদা আনন্দ। তাই কাম কাজ ফালায়া আইসা পরি।”

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আইপি নিউজকে জানান, এবছর মোট ৪৫ জন পরিক্ষার্থী রয়েছে। দুজন অনিয়মিত ছাত্র। এতে মোট আদিবাসী পরিক্ষার্থী রয়েছে ১০ জন।

সহকারী শিক্ষক মজিবর রহমানের সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও সাবেক টিডব্লিউএ চেয়ারম্যান সুশিল নকরেক।
তিনি বলেন, ‘১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয়টি গারো অধ্যুষিত দুর্গম অঞ্চলে আলো জ্বালিয়ে যাচ্ছে। অনেক ছাত্র দেশের প্রথম সাড়ির চাকুরীজীবি ও সনামধন্য প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছে।’

প্রতিষ্ঠাকালিন প্রধান শিক্ষক কর্ণিয়া সাংমা যোগ করে বলেন, “বাঁশের বেড়া ও মাটির দালানে শিক্ষাকার্যক্রম শুরু করা বিদ্যালয়টি আজ অনেকাংশে উন্নত।”
তিনি আরোও বলেন, ” বিনা পারিশ্রমিকে কাজ চালিয়ে গেছি। খরের চাল ফুটো হয়ে ভিজে যেতো পুরো প্রতিষ্ঠান।”

প্রধান শিক্ষকের বক্তব্যে উঠে আসে বিদ্যালয়ের অতীত বর্তমানের হালচিত্র। আজ বিদ্যালয়টি সরকারী তালিকাভূক্ত। ৫ তলা ও ২ তলা বিশিষ্ট দুটো ভবন আছে। এছাড়াও সেমিপাকা বিল্ডিং আছে ও বিশাল মাঠ আছে। পুরোপুরি আধুনিক শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনা করতে বিদ্যুৎ সংযোগ সুবিধায় রয়েছে কম্পিউটার ল্যাব।

তারপর নবীন ছাত্রদের উদ্যেশে নিয়ম-কানুন ও এসএসসি পরিক্ষার্থীদের পরিক্ষা বিষয়ক বক্তব্য প্রদান করেন।

বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের সাবেক শিক্ষার্থী পূর্ণ কুমার কোচ জানান, ‘আমি অত্যান্ত গর্বিত যে একজন আদিবাসী হিসাবে আদিবাসী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলাম। শুনে ভালো লাগে যে, আদিবাসী নামেই প্রাণপ্রিয় বিদ্যাপিঠ আজ এমপিওভুক্ত।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান রানা, ব্যাবস্থাপনা কমিটির সদস্য নূর ইসলাম মিষ্টার, সদস্য আমির হোসেন, সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেন, নজরুল ইসলাম প্রমূখ।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.