সীতাকুণ্ডে অবহেলাজনিত হত্যাকান্ডে দায়ীদের গ্রেফতার ও বিচার করতে হবে – বাম গণতান্ত্রিক জোট

সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণ এর ঘটনাস্থল পরিদর্শন, নিহতের পরিবার ও আহতদের দেখতে আজ ৬ জুন ২০২২ চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড ও চট্টগ্রাম হাসপাতালে গিয়েছিলেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। পরবর্তীতে বিকালে চট্টগ্রাম বাম জোট আয়োজিত সমাবেশে তারা বক্তব্য রাখেন।

এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা গভীর শোক ও তীব্র ক্ষোভ নিয়ে চট্টগ্রাম এসেছি। এখানে সরকারের ব্যর্থতা দেখছি। দেখছি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে সাধারণ মানুষের অভূতপূর্ব সাড়া।

নেতৃবৃন্দ বলেন, এই বিস্ফোরণের ঘটনায় মানুষ নিহত হওয়া, অবহেলাজনিত হত্যাকাণ্ড। এজন্য দায়ীদের এখনও গ্রেফতার না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে দায়ীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, অনুমোদন না নিয়ে এসব বিস্ফোরক রাখা হয়েছিল। ফায়ার ব্রিগেড কর্মীরা প্রকৃত তথ্য পেলে উদ্ধার কাজ ঠিকভাবে করতে পারতেন বলে আমাদের জানিয়েছেন। তা হলে হয়ত ফায়ার ব্রিগেড কর্মীদের জীবন দিতে হোত না।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বার করতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি করতে হবে। বিশেষজ্ঞ ও চিকিৎসকদের ওই টিমে রাখতে হবে। আহতদের সুচিকিৎসা, ক্ষতিপূরণ, পুনর্বাসন করতে হবে। নিহতদের আজীবন কাজের মজুরীর সমান ক্ষতিপূরণ ও পরিবারের পুনর্বাসন করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বিএম কনটেইনারের মালিক পক্ষসহ অনেকে এখন নাশকতার গল্প ফাঁদতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এটা হলো চালাকি। এদের গ্রেফতার করতে হবে। অতীতে এধরনের ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচার না হওয়ায়, ঘটনা ঘটেই চলেছে।

নেতৃবৃন্দ সব অন্যায়, অনিয়ম, অনাচারের বিরুদ্ধে জনগণের ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

নেতৃবৃন্দ আজ ৬ জুন বেলা ১২ টায় সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার টার্মিনাল এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় নেতৃবৃন্দ স্থানীয় জনসাধারণ ও ফায়ার ব্রিগেড এর সদস্যদের সাথে কথা বলেন। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

এরপর দুপুরে চট্টগ্রাম হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান। চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেন।

বিকেল সাড়ে ৪ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্বে করেন বাম জোট চট্টগ্রাম জেলার সমন্বয়ক শফিউদ্দিন কবির আবিদ। বক্তব্য রাখেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্যতম কেন্দ্রীয় নেতা, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদের সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ ফিরোজ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের ডা. হারুন উর রশীদ, বাসদ (মার্ক্সবাদী)’র মানস নন্দী, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আব্দুল আলী, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্ক্সবাদী)’র বিধান দাস, চট্টগ্রাম বাম জোটের নেতা অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, মহিনুদ্দিন মইন, জাহীদুন্নবী কনক, নূরুচ্ছফা ভূঁইয়া প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি মিছিল চট্টগ্রাম এর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.