বান্দরবানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

বান্দরবানের বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার এক নারীকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মীর মুহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ (৩৯) বিরুদ্ধে। আর এই অভিযোগে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী নারী। সোমবার দুপুরে ধর্ষনের অভিযোগ এনে বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের আদালত ধর্ষণের মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী।

সোমবার (২৩ মে) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ সাইফুর রহমান মামলাটি আমলে নিয়ে বান্দরবান ট্যুরিস্ট পুলিশের ওসি জাহাঙ্গীর হোসেনকে তদন্তের নির্দেশ দেন। মামলার ব্যাপারে তথ্যটি নিশ্চিত করেন, বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত পেশকার এস এম মাইনুল ইসলাম।

মামলার বাদীর আইনজীবি চেম্বারের তথ্যে মতে, ২৩ মে বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত বরাবর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ২০০০(সংশোধিত ২০০৩) এর ৯(১) ধারা ও তৎসহ দন্ডবিধি ৫০৬ (২) ধারার ধর্ষনের আইনে বাদী পক্ষ হয়ে আইনজীবী দীপঙ্কর দাশ গুপ্ত এই মামলাটির দায়ের করেন।

এদিকে এজাহার সুত্রে জানা যায়, ইসলামী ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা বিভিন্ন কায়দায় কথা বলেন ভুক্তভোগী নারী সাথে। এক পর্যায়ের ঐ নারীকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। বিয়ের প্রস্তাব নাকোচ করার পর তিনি এক পর্যায়ের কোরআন শরিফে শপথ করে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে শারিরীক সম্পর্কে জড়িয়ে পরেন। পরবর্তীতে গেল ২০১৯ সালে ৪ জুলাই বিকালে ঐ নারীকে নিজের অফিসে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে।

তথ্যসূত্র: পাহাড়বার্তা

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.