মহান মে দিবসের প্রেরণায় শোষণমুক্তির সংগ্রাম এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান সিপিবির

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স আজ ৩০ এপ্রিল প্রদত্ত এক বিবৃতিতে মহান মে দিবস উপলক্ষে সারাবিশ্বের শ্রমিকশ্রেণিসহ দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বিবৃতিতে যথাযথ মর্যাদায় দিবসটি পালন ও শ্রমিক মেহনতি মানুষের মুক্তির আন্দোলন বেগবান করতে সচেতন মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের অঙ্গিকার এবং বাংলাদেশের সংবিধান অনুসারে রাষ্ট্রীয় মালিকানার নীতিতে দেশ পরিচালনার কথা থাকলেও লুটেরা পুঁজিপতিরা বারবার রাষ্ট্র ক্ষমতাকে ব্যাবহার করে রাষ্ট্রীয় কল-কারখানাকে বন্ধ করে শ্রমিকদের জীবনে চরম সংকট সৃষ্টি করে নব্য ধনিক গোষ্ঠীকে আরও ধনি করে শোষণ বৈষম্য বৃদ্ধি করছে।

এমতাবস্থায় ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমেই শ্রমিকশ্রেণির অধিকার আদায় করতে হবে। শোষণ মুক্তির সংগ্রাম বেগবান করতে হবে।
নেতৃবৃন্দ বলেন, মে দিবসের বিপ্লবী প্রেরণায় শোষণমুক্তির সংগ্রাম এগিয়ে যাবে। তাই মহান মে দিবসে নতুন করে শপথ নিয়ে শ্রমিকশ্রেণিকে সব ধরনের শোষণ-নির্যাতন-নীপিড়নের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ তীব্র সংগ্রাম গড়ে তুলতে হবে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থে এখনও শ্রম আইন প্রতিষ্ঠা করা হয়নি। দেশের শ্রম আইনে শ্রমিকদের যতটুকু অধিকার দেয়া আছে, ততটুকুও প্রতিষ্ঠা করা হয়নি। শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরি দেয়া হয়না।

বিবৃতিতে জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকার দাবি জানিয়ে বলা হয়, সকল সেক্টরে মানবিক জীবন যাপন উপযোগী ন্যূনতম মজুরি দিতে হবে। রেশনিং, বাসস্থান ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা দিতে হবে। গ্র্যাচুইটি ও পেনশন ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে হবে। অবাধ ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিত করাসহ সংবিধান এবং আইএলও কনভেনশন অনুযায়ী শ্রমআইন-বিধি সংশোধন ও কার্যকর করতে হবে, শ্রমিকদের জন্য স্থায়ী রেশন ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করা, রানা প্লাজা, সেজান জুস কারখানা অগ্নিকাণ্ডসহ মালিকশ্রেণির অবহেলাজনিত বিভিন্ন ঘটনায় নিহত-আহত শ্রমিকদের ন্যায্য ক্ষতিপূরণ, দায়ী সকল মালিকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। ছাঁটাই, হামলা-মামলা-নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। বিবৃতিতে এসব দাবি আদায়ে ঐক্যবদ্ধ শ্রমিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান হয়।

মে দিবসের কর্মসূচিঃ
সিপিবি মহান মে দিবসে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র নেতা-কর্মীরা সকাল ৯টায় কমরেড মণি সিংহ সড়কের মুক্তিভবনস্থ পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমবেত হবেন এবং শ্রমিক সমাবেশে অংশগ্রহণ করে সংহতি জানাবেন।

এছাড়াও বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় নানাবিধ কর্মসূচি পালিত হবে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.