নানা কর্মসূচি নিয়ে এগিয়ে যেতে চায় জাতীয় হাজং সংগঠন

বাংলাদেশ জাতীয় হাজং সংগঠনের (বাজাহাস) কার্যক্রমের মূল্যায়ন ও বার্ষিক কর্ম-পরিকল্পনা বিষয়ক সভা গত ১১ মার্চ শুক্রবার নেত্রকোণা জেলার বিরিশিরি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর কালাচারাল একাডেমিতে
অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটি, শাখা কমিটি ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের হাজং নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সেখানে জাতীয় হাজং সংগঠনের আগামী এক বছরের কর্ম-পরিকল্পনায় বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণের কথা বলা হয়। তার মধ্যে রয়েছে- বাজাহাসের পুরাতন শাখা কমিটিগুলোকে শক্তিশালীকরণ ও কিছু নতুন শাখা কমিটি গঠন, সংগঠনের গঠনতন্ত্র ও সাংগঠনিক কর্ম সম্পর্কে কর্মশালা আয়োজন, হাজংদের প্রথাগত আইন ও হাজংদের গাওবুড়া (গ্রাম্য প্রধান)প্রথা শক্তিশালীকরণে সম্মেলন ও কর্মশালা, হাজং ধর্মীয় গুরুদের নিয়ে বৈঠক, হাজংদের ভূমি অধিকার বিষয়ে কর্মশালা, হাজং যুব, শিক্ষার্থী ও নারী নেতৃত্ব গঠনে কর্মসূচি গ্রহণ, হাজং সমাজের প্রতিভাবান, শিল্পী, সমাজকর্মী ও পরিশ্রমী ব্যক্তির সংবর্ধনা প্রদান, হাজংদের কৃষ্টি সংস্কৃতি ও ভাষা সংরক্ষণ বিষয়ে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ। এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নে ব্যক্তি, সংগঠন এবং সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাজাহাস সভাপতি আশিষ কুমার হাজং সকলকে শুভেচ্ছা জানান। এরপর সাধারণ সম্পাদক পল্টন হাজং সংগঠনের কার্যক্রম- অর্জন ও চ্যালেঞ্জসমূহ নিয়ে আলোচনা করেন। সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল হাজং বর্তমান সময়ে হাজংদের অবস্থান সম্পর্কে একটি সামগ্রিক প্রেক্ষাপট তোলে ধরেন। হাজংমাতা রাশিমণি কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মতিলাল হাজং এই প্রতিকূল পরিবেশেও হাজং সংগঠনের বিভিন্ন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান এবং আরো কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ দেন। হাজং নারী সংগঠনের সভানেত্রী সন্ধ্যা রানী হাজং তাদের সংগঠনের কার্যক্রম তোলে ধরেন এবং বিরিশিরিতে হাজং বোর্ডিংটি কিভাবে বেদখলকারীদের হাত থেকে উদ্ধার করা যায় সে ব্যবস্থা গ্রহণে সংগঠনকে এগিয়ে আসতে বলেন। বাজাহাস সহ-সভাপতি হরিদাস হাজং বেশ কিছু কর্মসূচি সময় ও দায়িত্বশীল ব্যক্তি নির্ধারণ করে ধরে ধরে পরিকল্পনা গ্রহণের পরামর্শ দেন। মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্যমে বিরিশিরি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির সাবেক পরিচালক স্বপন হাজং বর্তমান সময়ে সঙ্গীত জগতের অন্যতম নক্ষত্র কোক স্টুডিও বাংলার বিখ্যাত হাজং গান ‘নাসেক নাসেক (নাচো নাচো)’ এর কন্ঠশিল্পী হাজং অনিমেষ রায়কে সাংগঠনিক সংবর্ধনা দেওয়ার কথা প্রস্তাব করেন।

বাজাহাসের কর্ম-পরিকল্পনার প্রতি সমর্থন জানিয়ে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হাজং ছাত্র সংগঠনের সভাপতি জিতেন্দ্র হাজং, উন্নয়নকর্মী নারায়ন হাজং, সংগঠক দশরথ চন্দ্র অধিকারী, কুমেদ হাজং, অজিত হাজং, পূর্ণ হাজং, সুজিপ্ত হাজং, রূপম হাজং, শিক্ষিকা বিনীতা হাজং প্রমুখ।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.