কল্পনা চাকমা অপরহণ মামলা নারাজীর শুনানি পিছিয়েছে

রাঙামাটি প্রতিনিধি: আদিবাসী নেত্রী কল্পনা চাকমার অপহরণ মামলার পুলিশ সুপারের তদন্ত প্রতিবেদনের উপর বাদীর নারাজী আবেদনের শুনানী শেষে অধিকতর শুনানির জন্য আগামী ২ মে দিন ধার্য করেছে আদালত।
বুধবার সকাল সাড়ে এগার টায় অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা আলীর আদালতে বাদীর নারাজী আবেদনের উপর শুনানী শুরু হয়। প্রায় ঘন্টাব্যাপী শুনানীতে পুলিশ ও বাদীপক্ষের বক্তব্য শুনার পর পরবর্তীতে আদেশ দেওয়ার কথা বলে আদালত মুলতবি ঘোষণা করেন। পরে দুপুরে আদেশ দেন আদালত।
গত বছর ৭ সেপ্টেম্বর রাঙামাটি পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান কল্পনা অপহরণের তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করলে মামলার বাদী কল্পনার বড় ভাই কালিন্দী কুমার চাকমা নারাজী আবেদন দেন। এই আবেদনের উপর গত ১০ জানুয়ারী শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। এতেও কোন আদেশ না দিয়ে ২২ মার্চ শুনানীর দিন ধার্য করেন।
বাদী পক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট জুয়েল দেওয়ান বলেন, আমরা নারাজী আবেদন দিয়ে অধিকতর তদন্ত দাবী করেছি। আদালত আমাদের বক্তব্য শুনেছেন।
শুনানীতে মামলার বাদী কল্পনা চাকমার বড় ভাই কালিন্দী কুমার চাকমা, ব্লাস্টের চট্টগ্রাম সমন্বয়ক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম চৌধুরী, ঢাকার ব্লাস্টের প্রতিনিধি এ্যাডভোকেট বরকত আলী চাকমা রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, চাকমা রাণী য়েন য়েন, সহ ঢাকা থেকে আসা মানবধাধিকার কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ১৯৯৬ সালের ১১ জুন গভীর রাতে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার নিউ লাল্যাঘোনার নিজ বাড়ি থেকে কল্পনা চাকমাকে অপহরণ করা হয়। আলোচিত এ ঘটনায় দেশে-বিদেশে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। ঘটনার পরদিন ১৩ জুন বাঘাইছড়ি থানায় বাদী হয়ে মামলা করেন কালিন্দী কুমার চাকমা। এ মামলার ৩৯ তম তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে গত ৭ সেপ্টেম্বর তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করলে এ প্রতিবেদন প্রত্যাখান করে নারাজী আবেদন দিয়ে অধিকতর তদন্তের দাবী জানান মামলার বাদী কালিন্দী কুমার চাকমা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *