গোদাগাড়ীতে আদিবাসীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আদিবাসীদের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা । শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার কাকনহাট সুন্দরপুর যুক্তিপাড়া গ্রামের ৭টি বাড়িতে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

এসময় বাড়ি বাঁচাতে আসলে আদিবাসীদেরকে মারধর করে দুর্বৃত্তরা। মারধরে আহত হয় মডল সরেনসহ কয়েকজন। আদিবাসীরা অভিযোগ করেন, ১০দিন আগে সুন্দরপুর যুক্তিপাড়ায় ৭৮ ও ৭৯ নং দাগে ৭৬শতক জমিতে মডল সরেনসহ কয়েকজন ৭টি বাড়ি তৈরী করে। জমিগুলো নিজেদের দাবি করে উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের মোজাম্মেল হক। আদিবাসীদেরকে জমি ছেড়ে চলে যেতে বললে আদিবাসীরা দাবি করে তাদের এটি পৈত্রিক সম্পত্তি।

এরপর মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে শুক্রবার দিবাগত রাতে দুর্বৃত্তরা আদিবাসীদের ওপর হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও আগুন দেয়। আদিবাসীদের বাড়িঘর ও আসবাবপত্র ভেঙ্গে ও পুড়ে যাওয়ায় প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়।

মডল সরেন জানান, শত শত বছর ধরে জমিতে তার পিতা ভোগ করে আসছে। তিনি পিতার সূত্র ধরে এই জমি চাষাবাদ করে আসছিল। কিন্তু ছেলেদের বাড়ি ঘর তৈরীর প্রয়োজন হওয়ায় ১০ দিন পূর্বে বাড়িঘর তুলে। এরপর হঠাৎ করে মোজাম্মেল হকসহ কয়েকজন তাদের জমি বলে দাবি করেন।

বাড়ি ঘরে আগুন, ভাংচুর, হামলা ও নির্যাতনের অভিযোগ এনে শনিবার গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে মডল সরেন। অভিযোগে আসামী করা হয় কাশিমপুর গ্রামের মৃত ইসমাইলে হোসেনের ছেলে মোজাম্মেল হক, তার ছেলে দুরুল হোদা, ঘিয়াপুর পুকুর গ্রামের মৃত বেলাল উদ্দীনের ছেলে নাসির উদ্দীন ও কাশেম।

গোদাগাড়ী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিপজুর আলম মুন্সি বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। সত্যতা পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ছবি এবং তথ্যসুত্রঃ saheb-bazar24.com

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *