রাবিতে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম,রাজশাহী: আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির উদ্যোগে আজ ৮ জানুয়ারি ২০২২ তারিখ বিকাল ৩.০০টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস্ কমপ্লেক্সের হলরুমে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষায় নায্য অভিগম্যতার উপর আলোচনা এবং আদিবাসী শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে আদিবাসী শহীদসহ দেশের সকল বীর শহীদদের আত্মার শান্তির জন্য ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। আলোচনায় সকল অতিথিবৃন্দকে আদিবাসী ছাত্র পরিষদের উত্তরীয় প্রদান করা হয়। একই সাথে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিপ্রাপ্ত আদিবাসী শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।

আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উচ্চশিক্ষা গ্রহণ নিশ্চিত ও ঝরে পড়া রোধে ৪ দফা সুপারিশমালা বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষের কাছে অবহিত করা হয় । আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য ৫% আসন সংরক্ষিত রাখতে হবে। সমতলের আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষিত আসনের দুই -তৃতীয়াংশ বরাদ্দ রাখতে হবে। ভর্তিকৃত সমতল আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা করতে হবে। প্রতিটি হলে কক্ষ বরাদ্দ রাখতে হবে।

আলোচনা সভায় আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহীবিশ্ববিদ্যালয়কমিটির আহবায়ক কলাবতি মাহাতোর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড.সুলতান উল ইসলাম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা ড.তারেক নূর, ফোকলোর বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড.আমিরুল ইসলাম কনক এবং জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সবিন চন্দ্র মুন্ডা। আরও বক্তব্য রাখেন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হেমব্রম, আদিবাসী যুব পরিষদ রাজশাহী জেলার সভাপতি উপেন রবিদাস, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নুকল পাহান এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি রতিশ টপ্য। শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন এ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মিলন মাহাতো এবং আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তৃষা হেমব্রম।

আলোচনায় সভায় প্রধান অতিথি উপ-উপাচার্য ড.সুলতান উল ইসলাম বলেন, এই অঞ্চলের আদিবাসী শিক্ষার্থীরা যাতে মুল ¯্রােতধারার শিক্ষার্থীদের সাথে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে সেই প্রচেষ্টা আমরা করবো। সুযোগ থাকলে আমরা আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য ৫% আসন বরাদ্ধ এবং আবাসনের ব্যবস্থা বিবেচনায় থাকবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা ড.তারেক নূর বলেন, আমরা চেষ্টা করবো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়কে সকল শিক্ষার্থীদের মত আদিবাসী শিক্ষার্থী বান্ধব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার প্রয়াস থাকবে।

বক্তারা আরও বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে সমতল আদিবাসীদের শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ প্রাধান্য দিতে হবে। আদিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫% কোটা বরাদ্ধ রাখতে হবে। আদিবাসীদের সংস্কৃতি পালন করার জন্য একটি রুম বরাদ্ধ দিতে হবে। ভর্তির ক্ষেত্রে সমতল অঞ্চলের সকল আদিবাসী জাতিগোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *