দিনাজপুরে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে আদিবাসী যুবকের সংবাদ সম্মেলন

দিনাজপুরে ছাত্রলীগ নেতার প্রভাব, কতিপয় আইনজীবি, পুলিশ ও প্রশাসনিক কর্মকর্তার সেচ্ছাচারিতার কারনেই আদিবাসীর পৈত্রিক প্রায় ৭ একর সম্পত্তি বেহাত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের কাছে আইনী সহযোগীতা না পেয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি উদ্ধাওে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে সংবাদ সম্মলন করেছেন আদিবাসী বিমল সরেন।
মঙ্গলবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপরোক্ত অভিযোগ করেছেন বীরগঞ্জ উপজেলার রাঙ্গালীপাড়া গ্রামের বুধরাই সরেনের পুত্র বিমল সরেন। তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন,বীরগঞ্জের ৩টি মৌজায় ৬ দশমিক ৬৫ একর সম্পত্তি তার দাদু রাম সরেনের নামে রেকর্ডীয় সম্পত্তি। ওই জমির আধিয়ার ছিলেন সামু মার্ডি,তার মৃত্যুর পর তার ৩ পুত্র বাবুল মার্ডি,রবি মারডি ও মান্দাই মার্ডি উক্ত জমি একই ভাবে চাষাবাদ করছিলেন। কিন্তু বেশ কিছুদিন ধরে তারা ফসলের অর্ধাংশ দেয়া বন্ধ করেদেন।
ওই ৩জন আদিবাসীকে পুজি করে এ্যাডঃ এমএইচ পারভেজ এর সহায়তায় বীরগঞ্জ সহকারী জজ আদালতে আমাদের বিবাদীভুক্ত করে জমির মালিকানার দাবীতে সিভিল মামলা আনয়ন করা হয় এবং একটি মিথ্যা সোলেনামা স্বয়ন সৃজন করে,যার সিভিল মামলা নং ৫৭/১৫। ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ বিপ্লব, এ্যাডঃ এমএইচ পারভেজ ও এ্যাডঃ ইসমাইল হোসেন যোগসাজোসে মিলিত হয়ে সোলে-নামা পত্রে ১টি স্বাক্ষর এবং ৬টি টিপসহি প্রয়োগ করে এবং জনৈক্য রব্বানীকে দ্বারা সনাক্ত করে মাত্র ২৪দিনের মাথায় ছল-তঞ্চকী সোলে-ডিক্রী হাসিল করার মাধ্যমে ঐতিহাসিক জালিয়াতি সংগঠিত করেছে।
বিমল সরেন জানান,ঘটনার পর হতে অধ্যাবধি জমি উদ্ধার ও মাকিারণার বিষয়ে জেলা প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়ে জেলা প্রশাসক ,পুলিশ সুপারসহ সংশ্লীষ্ট সকল স্থানেই আবেদন নিবেদন করে কোন ফল পাওয়া যায়নি। বরঞ্চ তারা, বীরগঞ্জ ইউএনও এবং এসিল্যান্ড দ্বারা প্রতারিত হয়েছেন। দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ তৌফিক ইমাম আদিবাসী চেনেন না এবং আদিবাসীদের জন্যে বিদ্যমান আইনটিও বুঝেন না ফলে তিনি ভুয়া কাগজ তৈরীকারী জালিয়াতদের পক্ষ নিয়ে প্রকৃত জমির মালিককে দীর্ঘদিন যাবৎ হয়রানী করেছেন। তিনি অভিযোগ করেন,তৈরী করা মিথ্যা দলিলের বোদৗলতে ভ’মিগ্রাসীরা জমি গ্রাস করছে আর সহযোগীতা না করে জেলা প্রশাসন ভ’মিগ্রাসী জালিয়াত চক্রকে সহায়তা করে চলেছেন,আমরা চাই সুষ্ঠভাবে তদন্ত করে দেখা হউক জমির প্রকৃত মালিক কারা।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,বাংলাদেশ আদিবাসী সমিতির উপদেষ্টা জেমস্ পিটার তালুকদার, সভাপতি বিশ্বনাথ সিং,সহ-সভাপতি মি.জুলিয়াস মরমু,সদস্য কমল কান্ত খালকো ও কমল কিসকু প্রমুখ।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *