পীরেন স্নালের ১৮তম হত্যা বার্ষিকী উপলক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আজ ৩রা জানুয়ারী টাংগাইল জেলার মধুপুরে ইকোপার্ক বিরোধী আন্দোলনে বনরক্ষী ও পুলিশের গুলিতে নিহত শহীদ পীরেন স্নালের ১৮ তম হত্যা বার্ষিকী উপলক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি ইউজিন নকরেক এর সভাপতিত্বে লিয়াং রিছিলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সহসভাপতি অজয় এ মৃ, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারন সম্পাদক অলিক মৃ,জিএসএফ এর মধুপুর শাখার আহবায়ক তুষার নেকলা,আজিয়ার সভাপতি মিঠুন হাগিদক সহ প্রমূখ।

বাগাছাস কেন্দ্রীয় সংসদের সাধারন সম্পাদক অলিক মৃ বলেন শহীদ পীরেন হত্যার ১৮ বছর পার হলেও এখনো তার হত্যার বিচার হয়নি। অবিলম্বে পীরেন হত্যার বিচার করতে হবে।এ ছাত্রনেতা আরো বলেন সুফল প্রকল্প সহ আদিবাসীদের ভূমিতে গেস্ট হাউজ, বিনোদন কেন্দ্র, লেক ও পার্ক নির্মাণ করার চেষ্টা করলে মধুপুরবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে সেটি প্রতিহত করবে।

আদিবাসী ফোরামের সহসভাপতি অজয় এ মৃ বলেন, মধুপুরে আদিবাসীরা ৬২ সাল থেকে আজ অব্দি ভূমি রক্ষার আন্দোলন করে যাচ্ছে। বন ও ভূমি রক্ষার আন্দোলনে পীরেন স্নাল তার জীবন আত্মাহুতি দিয়েছে।উৎপল নকরেক আজীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করেছে অথচ সরকার আবারও আদিবাসীদের উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তিনি ছাত্র যুবদের আগামীদিনের আন্দোলন সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত থাকার আহবান জানান।

জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি ইউজিন নকরেক তার বক্তব্যে বলেন, মধুপুরে আদিবাসীদের আন্দোলন সংগ্রাম ছাড়া ভূমির অধিকার প্রতিষ্ঠা করা যাবেনা।পীরেন জীবন দিয়ে আমাদের সংগ্রামকে আরো শক্তিশালী ও বেগবান করেছে। এই আদিবাসী নেতা আরো বলেন উন্নয়নের নামে আদিবাসীদের উচ্ছেদ ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হবে অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে প্রতিহত করা হবে। তরুণ সমাজকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সে লড়াইয়ে সামিল থাকার আহবান জানান।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *