মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার খাসিদের ভূমির মালিকানা দেওয়ার দাবি

মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার বিভিন্ন পুঞ্জিতে খাসি আদিবাসীদের ওপর হামলা ও তাদের পান জুম কর্তন করার প্রতিবাদে সিলেটে নাগরিক বন্ধন করেছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), সিলেট।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) বিকেল ৪টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে এ নাগরিক বন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে আয়োজিত নাগরিক বন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বিভিন্ন খাসি পুঞ্জিতে আদিবাসীদের ওপর হামলা ও তাদের পানজুম কেটে ফেলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট শাখা এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

বাপা সিলেটের সহসভাপতি অধ্যাপক নাজিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে নাগরিক বন্ধনে বক্তারা বলেন, ডলুছড়া ও ভেলুয়া পুঞ্জিতে সামাজিক বনায়নের নামে খাসি উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। তাদেরকে উচ্ছেদ করতে বারবার হামলা করা হচ্ছে। শিশুসন্তানের সামনে পিতাকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। খাসিদের চলাচলে বাধা সৃষ্টির মাধ্যমে আতঙ্কিত করে তোলা হচ্ছে, যা স্বাধীন একটি দেশের জন্য লজ্জার।

বাপা সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম বলেন, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী গোষ্ঠী সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির জন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। এতে বড় হুমকিতে রয়েছে খাসিরা। যে জায়গায় প্রাকৃতিক বন রয়েছে, সেখানে সামাজিক বনায়নের কোনো যৌক্তিকতা নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আদিবাসী পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের সদস্য সচিব ফাদার জোসেফ গোমেজ বলেন, সামাজিক বনায়নের একটি নিয়ম আছে। এখানে বন বিভাগ কোনো নিয়মই রক্ষা করছে না। যার কারণে ভূমিখেকো ও বন খেকোদের সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হচ্ছে। চলমান বিরোধের জেরে কর্মধা ইউনিয়নের ভেলুয়া পুঞ্জিতে পাঁচটি খাসি-গারো পরিবারের দুই হাজার ৮০০ পানগাছ কাটা হয়। অথচ এ ঘটনায় মামলা হলেও কাউকে গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ।

নাগরিক বন্ধনে আরও বক্তব্য দেন- হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সিলেট মহানগর সভাপতি অ্যাডভোকেট মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা, তথ্যচিত্র নির্মাতা নিরঞ্জন দে যাদু, বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলার আহ্ববায়ক উজ্জ্বল রায়, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম সিলেট শাখার সভাপতি গৌরাঙ্গ পাত্র, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আফম জাকারিয়া, ভাষা সংগ্রামী আব্দুল মতিন চৌধুরী মিউজিয়ামের প্রতিষ্ঠাতা ডা. মোস্তফা শাহজামান চৌধুরী বাহার, প্রেসবিটারিয়ান চার্চ নয়াসড়কের চেয়ারম্যান দীপক নিঝুম সাংমা, অ্যাডভোকেট সুদীপ্ত অর্জুন, গণজাগরণ মঞ্চ সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু, দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা’র সংগঠক রাজিব রাসেল, খাসি স্টুডেন্ট ইউনিয়ন সিলেট শাখার সভাপতি এলিজাক তাংওং, সানডে পোডাং প্রমুখ।

source: sylhetvoice.com

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *