গোবিন্দগঞ্জে সাঁওতালদের জমিতে অর্থনৈতিক অঞ্চল বন্ধের দাবি

সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, রাজশাহী: গাইবান্ধায় গোবিন্দগঞ্জ-দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের কাটামোড় এলাকায় সাঁওতালদের পৈত্রিক জমিতে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল-বেপজার সকল কর্মকান্ড বন্ধের দাবিতে আজ ১৯ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার সময় মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মাদারপুর থেকে সাঁওতালদের বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ওই সমাবেশে অংশ নেয়।

সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সাহেবগঞ্জ বাগদাফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মাস্টার, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সুফল হেমব্রম, সহ কোষাধ্যক্ষ প্রিসিলা মুরমু, ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির নেতা স্বপন শেখ, কেরিনা হাসদা, নুরুল ইসলাম হাজী, থমাস হেমব্রম, সুচিত্র মুরমু তৃষ্ণা, সদস্য ময়নুল হক ও অলিভিয়া হেমব্রম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ২০১৬ সালে ৬ নভেম্বর সাঁওতালদের উপর তৎকালীন এমপি অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, মহিমাগঞ্জস্থ রংপুর চিনিকলের এমডিসহ স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় পুলিশের ছত্রছায়ায় স্থানীয় সন্ত্রাসীরা বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে বসতবাড়ীতে অগ্নিসংযোগ, ভাংচুর, লুটপাট করে। এ ঘটনায় ৩ সাঁওতাল নিহত ও বহু সাঁওতাল আহত হয়ে আজও মানবেতর জীবন যাপন করছে। এমতাবস্থায় একটি স্বার্থান্বেসী মহল চক্রান্ত করে সাঁওতাল-বাঙালিদের পৈত্রিক তিন ফসলী জমিতে ইপিজেড বা অর্থনৈতিক অঞ্চল করার উদ্যোগ নিয়েছে।

বক্তারা বলেন, আমরা আদিবাসী-বাঙালিরা তিন সাঁওতালের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাপ-দাদার আবাদি জমিতে উন্নয়নের নামে তিন ফসলী জমি নষ্ট করে জনস্বার্থ বিরোধী কথিত প্রকল্পের চরম বিরোধিতা ও নিন্দা জানাই। তারা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী তিন ফসলি আবাদী জমি নষ্ট করে কোন স্থাপনা করা বা এক ইঞ্চি আবাদি জমিও ফেলে রাখা যাবে না। কৃষি বান্ধব এ ঘোষণার পরও বেপজার নামে জনস্বার্থ বিরোধী এ প্রকল্প গ্রহণযোগ্য নয়। আমরা আদিবাসী বাঙালিদের এই ন্যায়সঙ্গত দাবিতে সকলকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাই।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *