খাগড়াছড়িতে আদিবাসী কিশোরীকে গণধর্ষণ: আটক দুই

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা সদরের বাস টার্মিনালে এক মারমা আদিবাসী কিশোরীকে (১৬) দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ ৩ জুলাই ২০২১ শনিবার ভোর ৪:০০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই ধর্ষণকারীকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, পরিবারের সাথে মনোমালিন্যের জেরে রাগ করে গভীর রাতে বাসা থেকে বের হয়ে আসে ওই কিশোরী। এরপর সারারাত পায়ে হেঁটে ভোর ৪:০০ টায় খাগড়াছড়ি বাস টার্মিনালের কাছে পৌঁছায়। তাকে একা পেয়ে দুইজন যুবক পথ অনুসরণ করতে থাকে। এক পর্যায়ে বাস টার্মিনাল এলাকায় এলে দুই যুবক জোর করে তুলে নিয়ে গাড়ির ভিতরে গণধর্ষণ করে। এরপর কিশোরীটি পালানোর চেষ্টা করে। পরে তাকে আরেকটি গাড়ির ভিতরে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণ করা হয় বলে জানা যায়।

এদিকে ঘটনার পর ভুক্তভোগী কিশোরী নিজেই খাগড়াছড়ি সদর থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ আজ শনিবার সকাল ৬:০০ টার দিকে বাস টার্মিনাল এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই ধর্ষণকারীকে আটক করে।

আটককৃতরা হল খাগড়ছড়ি সদর উপজেলার উত্তর গঞ্জপাড়া এলাকার বাসিন্দা আলী আহমদের ছেলে নাম মো: কামাল মিজি (২৯) ও হবিগঞ্জের মাধবপুর থানা এলাকার বাসিন্দা মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে রফিকুল ইসলাম (২৫)। কামাল খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম লোকাল বাসের শ্রমিক এবং রফিক বাস টার্মিনালে তার ভাইয়ের দোকানে কাজ করে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আব্দুর রশীদ জানান, অভিযোগ পেয়ে আমাদের পুলিশ ফোর্স বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে অভিযুুক্তদের আটক করেছে। মামলা হয়েছে। আলামত হিসেবে গাড়ি দুটি জব্দ করা হয়েছে। আসামীদের দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *