পাহাড়ের ১৪২ প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের সুপরিশ সংসদীয় কমিটির

তিন পার্বত্য জেলায় প্রায় ২০ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত ১৪২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে বিশেষ বিবেচনায় জাতীয়করণের ব্যাপারে বাস্তবভিত্তিক উদ্যোগ গ্রহণের সুপারিশ করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি।

গতকাল বুধবার (২৩ জুন) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এসব বিষয়ে সুপারিশ করা হয়। সংসদ সচিবালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এছাড়াও পার্বত্য জেলাগুলোতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগের শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল করার সুপারিশও করা হয়।

সংসদ সচিবালয় জানায়, বৈঠকে পার্বত্য এলাকায় পর্যটনসহ যেকোনো স্থাপনা নির্মাণের ক্ষেত্রে যেন পরিবেশ এবং প্রতিবেশের কোনোপ্রকার ক্ষতি না হয় এবং পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জীবনমান, কৃষ্টি ও সংস্কৃতি সংরক্ষণ, জীবন-জীবিকার ক্ষতিসাধন কিংবা স্বাভাবিক চলাচলে বাধার সৃষ্টি না হয়, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশও করা হয়।

এছাড়া বৈঠকে পার্বত্য এলাকায় আদিবাসীদের মাতৃভাষার মাধ্যমে জ্ঞানার্জনের জন্য স্থানীয় ভাষার সংরক্ষণ, শিশুদের মাতৃভাষায় শিক্ষার সুযোগ লাভের জন্য অনতিবিলম্বে স্থানীয়/আঞ্চলিক ভাষায় দক্ষ শিক্ষকদের পদ সৃষ্টি এবং শিক্ষক নিয়োগের ব্যাপারে বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কমিটি সুপারিশ করে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি দবিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়কমন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং, দীপঙ্কর তালুকদার, এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা ও মীর মোস্তাক আহমেদ রবি অংশ নেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *