পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির রাঙামাটি শহর শাখার সম্মেলন ও কাউন্সিল সম্পন্ন

“দ্রোহ বিপ্লবের সাহসী প্রাণ, মুক্তির মিছিলে হও আগুয়ান” এই স্লোগানে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করার আহ্বানে পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতি রাঙ্গামাটি শহর কমিটির ৫ম শাখা সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি রাঙ্গামাটি জেলা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত শাখা সম্মেলন ও কাউন্সিলে যুব সমিতি রাঙামাটি শহর শাখার ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নিরুপম চাকমার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রিটেশ চাকমার সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি রাঙ্গামাটি জেলা কমিটির তথ্য ও প্রচার সম্পাদক নগেন্দ্র চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতি রাঙ্গামাটি জেলার সাধারণ সম্পাদক অরুন ত্রিপুরা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সভাপতি মিলন কুসুম তঞ্চগ্যা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মিনাকী চাকমাসহ যুব সমিতি, পিসিপি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

হিল উইমেন্স ফেডারেশন রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মিনাকী চাকমা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আজ একটা ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। সে সাথে বাড়ছে নারীর উপর নিপীড়ন ও সহিংসতা। এর থেকে মুক্তি পেতে চুক্তি বাস্তবায়নের বিকল্প নেই। তাই পিসিপি, যুব সমিতি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দকে একসাথে আন্দোলন জোরদার করার আহবান জানান এই নারী নেত্রী।

সংহতি বক্তব্যে পিসিপি রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সভাপতি মিলন কুসুম তঞ্চগ্যা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের বিরাজমান পরিস্থিতিতে যুব সমিতির কাউন্সিল নিসন্দেহে একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্থ বহন করে। কর্মীরা সাহসী বলেই শত প্রতিকূলতা সত্ত্বেও আন্দোলনকে বেগবান করার জন্য কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করছে। আগত দিনগুলোতে যুব সমিতির সাথে জোটবদ্ধ আন্দোলনের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন এই ছাত্রনেতা।

যুব সমিতি রাঙ্গামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অরুন ত্রিপুরা বলেন, পার্টি ও জনগণ একে অপরের পরিপূরক। অতীতে পার্টিও (জনসংহতি সমিতি) সশস্ত্র জমানায় এই জনগণ অনেক সাহায্য সহযোগিতা দিয়েছে। তাই জনগণের সাথে মিশে পার্টির কার্যক্রম চালিয়ে নিয়ে যেতে সম্মেলনে উপস্থিত নেতৃবৃন্দদের প্রতি আহবানও জানান পাহাড়ের এই যুব নেতা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনসংহতি সমিতি নেতা নগেন্দ্র চাকমা বলেন, অতীতে পার্টি তথা পাহাড়ের জুম্ম জনগণের বিভিন্ন আন্দোলনে যুব সমিতি রাঙামাটি শহর শাখা কমিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। নব গঠিত কমিটিও সে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আরও সুসংগঠিত হয়ে যখন যে বাস্তবতায় রাঙ্গামাটি শহরের বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে জুম্ম জনগণের অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রাম ও আন্দোলনের বার্তা সাধারণ জুম্ম জনগণের কাছে পৌঁছে দিবে। এছাড়া পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের আন্দোলনে সবাইকে নতুনভাবে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বানও জানান জনসংহতি সমিতির এই নেতা।

সম্মেলন শেষে রিটেশ চাকমাকে সভাপতি, সুমন চাকমা সাধারণ সম্পাদক করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির রাঙামাটি শহর শাখা কমিটিকে শপথ বাক্য পাঠ করান যুব সমিতি রাঙামাটি জেলা শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক উথাইমং মারমা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *