টাঙ্গাইলে কোচ আদিবাসী নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি

টাংগাইলের সখিপুর উপজেলার বড়চালায় আদিবাসী কোচ নারীর উপর যৌন নির্যাতনের সাথে জড়িত সকল আসামীকে দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে কোচ আদিবাসী ইউনিয়ন। এই দাবীতে সংগঠনটির আয়োজনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ১৫ জুন মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় টাংগাইল প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ কোচ আদিবাসী ইউনিয়নের যুগ্ম আহবায়ক রতন কোচের সভাপতিত্বে বকুল চন্দ্র বর্মণের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অলিক মৃ, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি জন জেত্রা,গারো স্টুডেনৃটস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক লিয়াং রিছিল,কোচ আদিবাসী ইউনিয়নের যুগ্ম আহবায়ক চন্দন কোচ,আদিবাসী যুব ফোরামের সদস্য স্বপন কোচ সহ প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, অবিলম্বে আদিবাসী নারীর উপর যৌন নির্যাতনকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে হুশিয়ারী দেন।

উল্লেখ্য যে,১০ জুন বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে একই এলাকার টেংগু সরকারের ছেলে দীনা সরকার (৩৩), নারায়ণ চন্দ্র সরকারের ছেলে মন্টু সরকার (৩০) ও ময়নাল মিয়ার ছেলে শবদুল মিয়া (২৮) দেশি চোলাই মদ পান করে তাদের বাড়িতে যায়। এরপর ওই নারীকে ঘর থেকে ডেকে বের করে পাশের একটি ফাঁকা জায়গায় নিয়ে তিনজনে মিলে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের এক পর্যায়ে দীনা সরকার ওই নারীর মুখমণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কামড়ে গুরুতর আহত করে। এছাড়াও গোপনাঙ্গ ও পায়ুপথ ছিঁড়ে ফেলে। ওই নারীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে ওই তিনজন দৌড়ে পালিয়ে যায়।গুরুতর আহত অবস্থায় ওই নারীকে প্রথমে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বর্তমানে আহত ওই নারী টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসাধীন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *