সীতাকুন্ডের সোনাইছড়িতে ত্রিপুরা আদিবাসীদের উচ্ছেদ বন্ধ করতে হাইকোর্টের র্নিদেশ

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের সোনাইছড়িতে বসবাসরত আদিবাসী ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের লোকজনকে তাদের ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করার তৎপরতা বন্ধ করতে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করেছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে এ নির্দেশনা প্রদান করেছেন এবং রুলস জারি করেছেন। সীতাকুন্ডের সোনাইছড়িতে বসবাসরত ত্রিপুরা আদিবাসী পরিবারগুলোকে উচ্ছেদ করার বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে করা এক রিটের প্রেক্ষিতে এ নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ভূমি সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ রিটের ১৮ জন বিবাদীকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি, সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে জানা যায় যে, সীতাকুন্ডের সোনাইছড়িতে বসবাসরত কমপক্ষে ৭৫ টি ত্রিপুরা পরিবারকে উচ্ছেদ করার জন্য তৎপরতা চালাচ্ছে আবুর খায়ের গ্রুপের লোকজন। এ প্রেক্ষিতে ত্রিপুরা পরিবারগুলোর উচ্ছেদ বন্ধ করার জন্য মানবাধিকার ও আইনি সহায়তা কেন্দ্র আইন ও সালিশ কেন্দ্র হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। আসক এর রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত এ নির্দেশনা প্রদান করল।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সৈয়দা নাসরিন ও শাহিনুজ্জামান শাহিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। রিটের মাধ্যমে জানতে চাওয়া হয় সীতাকুন্ডের সোনাইছড়িতে বসবাসরত ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের লোকজনকে উচ্ছেদ করার জন্য আবুল খায়ের গ্রুপ ও অপরাপর দুর্বৃত্তদের অপতৎপরতার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ এবং সেখানে ত্রিপুরাদের শান্তিপূর্ণ বসবাস ও তাদের নিরাপত্তা বিধানে বিবাদীগণের ব্যর্থতা কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *