বান্দরবানে জুম্ম তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ: এক আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

বান্দরবানের লামায় ম্রো তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।গত বুধবার ওই নারীর বাবা বাদি হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন বলে জানা গেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা লামা থানার উপপুলিশ পরিদর্শক আশরাফুল আলম মামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।অভিযুক্ত আসামি মাহবুবুর রহমান জাহিদ রূপসীপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলে জানিয়েছেন লামা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোস্তফা কামাল।পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান।

এদিকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, তরুণীকে বিয়ের কথা বলে পাঁচ বছর ধরে বিভিন্ন সময় র্ধষণ করে আসছিল মাহবুবুর রহমান। গত ১১ মে ২০২১ তারিখে তরুণীকে গর্ভপাত করার জন্য চাপ দিতে থাকেন তিনি। তরুণী রাজি না হওয়ায় তাঁকে মারধর করেন এবং জোর করে ওষুধ খাইয়ে খামার থেকে দ্রুত পালিয়ে চলে যান মাহবুবুর। এতে ওই তরুণী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে উপজলো স্বাস্থ্যকেন্দ্রে র্ভতি করা হয়।

এদিকে গতকাল (১৩ মে) একই জেলার সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক জুম্ম কিশোরীকে (১৪) এক বাঙালি সিএনজি চালক কর্তৃক ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল ১৩ মে ২০২১ বিকাল আনুমানিক ৪:৩০ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।
ধর্ষণের চেষ্টাকারীর পরিচয় মোহাম্মদ ওসমান (৩১), পীং-মো: আব্দুল হাকিম, ঠিকানা-বালাঘাটা গধার পাড়, ১নং ওয়ার্ড, বান্দরবান পৌরসভা, বান্দরবান সদর। সে পেশায় একজন সিএনজি চালক এবং বালাঘাটা সুপার স্টার বেকারীর কর্মচারী বলে জানা গেছে। পুলিশ আসামী মোহাম্মদ ওসমানকে গ্রেপ্তার করেছে বলেও জানা গেছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *