রাঙ্গামাটিতে ধর্ষণের চেষ্টাকারীসহ তার পক্ষ নেওয়া দুই শিক্ষকের শাস্তি চেয়েছে পিসিপি ও এইচডব্লিউএফ

রাঙ্গামাটিতে ধর্ষণের চেষ্টাকারী শিক্ষক কামরুল হাসানসহ তার পক্ষ অবলম্বনকারী রাণী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণতোষ মল্লিক ও কামরুল হাসানের ভাড়া বাড়ির মালিক বিএম ইনস্টিটিউটের সাবেক অধ্যক্ষ মাহমুদুননবীর শাস্তির দাবি জানিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ)।

আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, রাঙামাটি জেলা শাখা সাধারণ সম্পাদক জগদীশ চাকমা ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মিনাকি চাকমা স্বাক্ষরিত যৌথ বিবৃতিতে ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলা হয়, ধর্ষণের চেষ্টাকারী শিক্ষক কামরুল হাসান ফোন করে ছাত্রীটিকে টিউশনির বকেয়া টাকা তার বাসায় এসে পরিশোধ করার জন্য চাপ দেন। শিক্ষক কামরুল হাসানের চাপে অতিষ্ঠ ছাত্রী টিউশনির বকেয়া টাকা দেয়ার জন্য গত ১০ এপ্রিল সকাল ১০:০০ টার দিকে কে কে রায় সড়কের শিক্ষকের ভাড়ায় থাকা বাড়িতে আসে। টিউশনির টাকা শিক্ষকের হাতে দিয়ে চলে যেতে চাইলে শিক্ষক কামরুল হাসান ভুক্তভোগী ছাত্রীকে চা/ নাস্তা খেয়ে যেতে বলে অথবা নিজ হাতে বানিয়ে খেতে বলে। ছাত্রীটি অবস্থা বুঝতে পেরে ‘সময় নেই স্যার, বাড়িতে যেতে হবে’ বলে যেতে চাইলে এক পর্যায়ে ওই শিক্ষক ছাত্রীর উপর ঝাপিয়ে পড়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় ছাত্রীটি শিক্ষকের সাথে ধস্তাধস্তি করার এক পর্যায়ে শিক্ষকের হাতের আঙুলে কামড় দিয়ে সম্মান বাঁচাতে সক্ষম হন।

পরবর্তীতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও মেয়েটিকে আইনী আশ্রয় গ্রহণের জন্য সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করলেও মহান শিক্ষকের পেশায় থেকেও রাণী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রণতোষ মল্লিক দোষী কামরুল হাসানকে শাস্তি প্রদান করে ভুক্তভোগীকে ন্যায়বিচারের ব্যবস্থা না করে উল্টো ভুক্তভোগী ও তার পরিবারকে বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করার জন্য চাপ দেন। বাড়ির মালিক বিএম ইন্সটিটিউটের সাবেক অধ্যক্ষ মাহমুদুননবী খানও দোষী ব্যক্তির পক্ষে ওকালতি করছেন বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

বিবৃতিতে পিসিপি ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ দোষী কামরুল হাসানসহ রাণী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বিএম ইনস্টিটিউটের সাবেক অধ্যক্ষের অশিক্ষকসুলভ, পক্ষপাতমূলক আচরণ ও ভুক্তভোগীর পরিবারকে সামাজিকভাবে মেনে নিতে চাপ দেওয়ায় এবং দোষীর পক্ষে অবলম্বন করায় তাদেরও শাস্তির দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত ১০ এপ্রিল ২০২১, শনিবার সকাল ১০:০০ টার দিকে রাঙ্গামাটির জেলা শহরে রাণী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভোকেশনাল শাখার জেনারেল ইলেকট্রিকেল ট্রেডের ইন্সট্রাক্টর কামরুল হাসান কর্তৃক ১০ শ্রেণির এক জুম্ম শিক্ষার্থীকে (১৬) ধর্ষণের চেষ্টার এই ঘটনা ঘটে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *