চিম্বুকে হোটেল নির্মাণ বন্ধে ৫৯ বিশিষ্টজনের চিঠি

বান্দরবানে ম্রো আদিবাসীদের ভূমিতে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মাণ বন্ধের দাবি জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, সেনাবাহিনী প্রধানসহ সংশ্নিষ্টদের চিঠি দিয়েছেন নাগরিক সমাজের ৫৯ প্রতিনিধি। একই সঙ্গে এ প্রকল্পে সব ধরনের সম্পৃক্ততা প্রত্যাহার করতে আন্তর্জাতিক হোটেল চেইন ম্যারিয়ট ইন্টারন্যাশনাল বরাবরও চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গতকাল (১১ ফেব্রুয়ারী) বৃহস্পতিবার নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের পক্ষে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসানের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

উক্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চিম্বুকের ওই জনপদে অন্তত ১০ হাজার ম্রো জনগোষ্ঠীর বসবাস। উদ্যোক্তারা এটিকে ‘ম্যারিয়ট হোটেলস অ্যান্ড রিসোর্টস’ বলে বিজ্ঞাপন বোর্ডে প্রচার করলেও গত ১৯ জানুয়ারি ম্যারিয়ট ইন্টারন্যাশনালের ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ প্রকল্পে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়টি চূড়ান্ত নয় এবং তাদের নাম ও ব্র্যান্ডের ব্যবহার অনুমোদিত নয় বলে স্পষ্ট জানিয়েছেন।

বিশিষ্টজনদের পাঠানো উক্ত চিঠিতে বলা হয়, হোটেলের প্রয়োজনে ২০ একর জমি নেওয়ার কথা বলা হলেও কার্যত বিস্তৃত এলাকা জুড়ে চতুর্পাশে সীমানা খুঁটি স্থাপনের কাজ করা হচ্ছে, যা পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তিরও স্পষ্ট লঙ্ঘন।

চিঠিতে স্বাক্ষরকারীরা প্রথাগত জনগোষ্ঠীর অধিকার, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির প্রতি পূর্ণ সম্মান জানানোর আহ্বান জানিয়েছেন। এ বিষয়ে মতবিনিময়ের জন্য মন্ত্রী, সেনাবাহিনী প্রধান ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিবের সঙ্গে দেখা করার অনুরোধও জানিয়েছেন স্বাক্ষরকারীরা।

চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল, অর্থনীতিবিদ হোসেন জিল্লুর রহমান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নারী অধিকার কর্মী ড. হামিদা হোসেন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহউদ্দিন আহমেদ, টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান, গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, অধ্যাপক এম এম আকাশ, অধ্যাপক আসিফ নজরুল, আইনজীবী সারা হোসেন, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারন সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, বান্দরবানের আদিবাসী নেতা জুমলিয়ান আমলাই প্রমুখ।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *