বিশাল ক্ষতির মুখে ফেসবুক ও টুইটার

হিংসায় উসকানি দিয়েছেন, এ অভিযোগে ক্ষমতাসীন মার্কিন প্রেসিডেন্টের হিসাব বন্ধ করেছে ফেসবুক ও টুইটার। কিন্তু তাদের ব্যবসায় এর প্রভাব পড়েছে। এমনিতেই হোয়াটসঅ্যাপের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে ফেসবুক। সোমবার তাদের শেয়ার দরের অবিশ্বাস্য পতন হয়েছে। মোট ২ লাখ কোটি টাকা বাজারমূল্য কমেছে তাদের। অন্যদিকে কয়েক হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে টুইটারের। বিবিসি সূত্রে এই খবর পাওয়া গেছে।

২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটারদের বিপথে পরিচালিত করার অভিযোগে আগে থেকেই জেরবার ফেসবুক। তাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে উসকানিমূলক পোস্টের ক্ষেত্রে বিশেষ একটি দলের রাজনীতিকদের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলে হামলার ঘটনার দায়ও ফেসবুকের ওপর চাপান অনেকে। তার পর সারা জীবনের জন্য ট্রাম্পকে নিষিদ্ধ করেছে তারা।

কিন্তু এর প্রভাব পড়েছে ফেসবুকের ব্যবসায়। সোমবার তাদের শেয়ার দরে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ পতন হয়। মোট বাজারমূল্য থেকে ৩ হাজার ৩৬০ কোটি ডলার ক্ষতি হয়ে যায়, ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ২ লাখ ৪৬ হাজার কোটি টাকা। তবে শুধু ট্রাম্পের ওপর নিষেধাজ্ঞা বসানোর জন্য নয়, বরং নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগে তাদের অধীন মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ বয়কট করার হিড়িক পড়েছে। তাতেই এই বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি।

ফেসবুকের মতো না হলেও সোমবার ৫০০ কোটি ডলার ক্ষতি হয়েছে টুইটারের। সোমবার তাদের শেয়ার দরে ১২ শতাংশ পতন ঘটে। নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে ভুয়া তথ্য ছড়ানো এবং উসকানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগে ট্রাম্পের টুইটার চিরকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে তারা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *