এবারও শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচীর আয়োজন করেছে ঢাকাস্থ জুম্ম শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ

প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জুম্ম শিক্ষার্থী পরিবার এবং ঢাকাস্থ জুম্ম শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বার্ষিক শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচীর আয়োজন করতে যাচ্ছে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইডেন মহিলা কলেজ, ঢাকা কলেজসহ ঢাকাস্থ বিভিন্ন প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে পড়–য়া জুম্ম শিক্ষার্থী ও ঢাকাস্থ অভিভাবকদের যৌথ পরিচালনায় এ উদ্যোগটিকে এগিয়ে নিতে একটি আহ্বায়ক কমিটিও গঠন করা হয়েছে। আহ্বায়ক কমিটির মাধ্যমে অনলাইন তথা গণচাঁদা উত্তোলনের মাধ্যমে এ আয়োজনটিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। এবছরের শীতবস্ত্র ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণের সাথে করোনা প্রতিরোধী উপকরণও বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছে এবারের শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রমের আহ্বায়ক ও ঢাবি’র সিনিয়র শিক্ষার্থী রুনি চাকমা।

শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক সিনিয়র শিক্ষার্থী সরল তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, আমাদের এ কার্যক্রমটির একটি ধারাবাহিক ঐতিহ্য রয়েছে। প্রতিবছর আমরা আপামর মানবতাবাদী মানুষদের সহযোগীতায় এ উদ্যোগটি এগিয়ে নিয়ে থাকি। এই উদ্যোগটির মাধ্যমে আমরা শেকরের প্রতি আমাদের যে দায়িত্ব সেটিকে কিছুটা হলেও চর্চার চেষ্টা করে থাকি।

বিগত বছর এ কার্যক্রমটি বান্দবানের থানচি উপজেলার ছোট মোদকে বিভিন্ন প্রত্যন্ত জুম্ম জনপদে পরিচালিত হয়েছিল।এর আগে চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের ত্রিপুরা জনপদে এবং ২০১৭ সালে রাঙ্গামাটি জেলার রাজস্থলীতে এবং বান্দরবানের থানচি উপজেলার ক্রাউডং পাহাড়ে ম্রো জনপদে এই কার্যক্রমটি পরিচালিত হয়েছিল।এ বছর রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানের বিভিন্ন প্রত্যন্ত জনপদে এটি পরিচালিত হবে বলেও জানান আয়োজকরা।

বার্ষিক শীতবস্ত্র, শিক্ষা সামগ্রী ও করোনা প্রতিরোধী সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচী-২০২০ এর পরিচালনা কমিটির অন্যতম উদ্যোক্তা ও ঢাবির সিনিয়র শিক্ষার্থী লিটন চাকমা বলেন,”উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের পাশাপাশি জুম্ম শিক্ষার্থীরা তাদের শেকড়ের প্রতি দায়বোধের জায়গা থেকেই এ ধরণের সামাজিক দায়বদ্ধতামূলক কাজগুলো করে যাওয়ার চেষ্টা করে।”আগামী ২৭ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানের প্রান্তিক জনপদে শীতবস্ত্র বিতরণ চলবে। আগামী ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ আয়োজনকে কেন্দ্র করে অর্থ সংগ্রহের ক্যাম্পেইন পরিচালিত হবে বলেও জানান এ শিক্ষার্থী।

উক্ত উদ্যোগের অন্যতম স্বমন্বয়ক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সতেজ চাকমা জানান, যেকোনো মানবতাবাদী ব্যক্তি কিংবা সংগঠন এ আয়োজনে সহযোগীতা করতে পারবে। যারা সহযোগীতা করতে চাই তারা নগদ অর্থ কিংবা শীত নিবারণের জন্য কম্বল, বাচ্চাদের জন্য টুপি, সোয়েটার, শিক্ষা সামগ্রী এবং করোনা প্রতিরোধী উপকরণ আয়োজকদেরকে সরবরাহ করে এই উদ্যোগে সংহতি জানাতে পারবে।
সহযোগীতা প্রদানের জন্য নিম্নোক্ত একাউন্টগুলোতে সহায়তা প্রদান করা যাবে। বিকাশ: ০১৫৫৮৯৫১৪৪৫, রকেট: ০১৫৩২৪৪৮৯০২৮।
এ আয়োজন পরিচালনার জন্য একটি ইভেন্ট খোলা হয়েছে। যার ঠিকানা হল-
https://fb.me/e/1MAaELT8E

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *