পার্বত্য চুক্তির ২৩তম বর্ষপূর্তিতে বাঘাইছড়িতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি, বাঘাইছড়ি থানা শাখার উদ্যোগে গতকাল ২ ডিসেম্বর ২০২০ উদযাপন করা হয়।পার্বত্য চুক্তির ২৩তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা। জনসংহতি সমিতির বাঘাইছড়ি থানা শাখার সভাপতি প্রভাত কুমার চাকমা (কাকলি বাবু) এর সভাতিত্বে উক্ত আলোচনায় থানা ও রাঙ্গামাটির জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও স্হানীয় কার্বারীগণ আলোচনায় অংশগ্রহন করেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেলা শাখার সদস্য ডা: সুমুতি রন্জন চাকমা এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সভায় আরো উপস্হিত ছিলেন থানা শাখার সহ-সভাপতি উপৎলাক্ষ চাকমা(জিতেন)। এছাড়া বক্তব্য প্রদান করেন জনসংহতি সমিতির থানা শাখার সদস্য জ্ঞান প্রকাশ চাকমা,পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতির বাঘাইছড়ি থানা শাখার সভাপতি শ্রীমতি লক্ষীমালা চাকমা।
আলেচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন নয়ন জ্যোতি চাকমা ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, পার্বত্য চুক্তির ২৩ বছর পরও চুক্তির মৌলিক বিষয় সমূহ বাস্তবায়ন হচ্ছে না। এটা আমাদের জন্য হতাশার ও ক্ষোভের। উপরন্তু চুক্তি ভঙ্গ করে নিরাপত্তা বাহিনীর নতুন নতুন ক্যাম্প স্থাপন হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়। এছাড়া বাঘাইছড়ি উপজেলায় জনসংহতি সমিতির সদস্যদের উপর মিথ্যা মামলা,হয়রানি, নির্যাতন ও দমন-পীড়ন বৃদ্ধি পেয়েছে যা হওয়ার কথা ছিলনা বলেও মন্তব্য করেন বক্তারা।

বক্তারা আরো বলেন, আজ আমাদের নেতাকর্মীরা স্ব স্ব বাড়ীতে থাকতে পারেনা। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের তল্লাশি ও হয়রানিতে দিশেহারা। চুক্তির ২৩ বছরে আমরা এমনটি চাইনি বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন তারা।এমন দমন-পীড়ন অব্যাহত থাকলে চুক্তি পূর্ব বাস্তবতায় ফিরে যাওয়া ছাড়া আমাদের আর কোনো পথ নেই বলেও মত বক্তাদের।

এছাড়া বক্তারা আরো বলেন,চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে আমরা এমন জীবন চাইনি। অনিশ্চিত অবস্থায় নিরাপত্তাহীনতায় জুম্ম জনগণকে জীবন অতিবাহিত করতে হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তাঁরা।তবে কাঙ্খিত জীবনকে খুঁজে নিতে জুম্ম জনগণ প্রস্তুত বলেও হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন বক্তারা। জনসংহতি সমিতির বাঘাইছড়ি থানার সভাপতি প্রভাত কুমার চাকমার সমাপনি বক্তব্যের মধ্য দিয়ে আলোচনা সভাটি সমাপ্ত হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *