ম্রোদের উচ্ছেদ করে পাঁচতারা হোটেল ও বিনোদন পার্ক নির্মাণের প্রতিবাদে বান্দরবানে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

বান্দরবানের ম্রো আদিবাসীদের উচ্ছেদ ও প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট করে চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচতারা হোটেল ও এমিউজম্যান্ট পার্ক নির্মাণ উদ্যোগের প্রতিবাদে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম সচেতন ছাত্র সমাজ ও নাগরিকবৃন্দ’ এর উদ্যোগে বান্দরবান শহরে এক বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ২৭ নভেম্বর ২০২০ সকালের দিকে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সামনে প্রথমে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে পুরো শহর প্রদক্ষিণ করা হয়।

তনয়া ম্রোর সঞ্চালনায় ও মেনপং ম্রোর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী চং ইয়ং ম্রো।
এছাড়াও সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন তরুণ ম্রো লেখক ইয়াঙয়ান ম্রো, এডভোকেট উবাথোয়াই মারমা, এডভোকেট মাধবী মারমা, কবি ও কথা সাহিত্যিক রুপন ভট্টাচার্য, থোয়াক্য জাই চাক, অলকা তঞ্চঙ্গ্যা, অনিক তঞ্চঙ্গ্যা, উহ্লায়ী মারমা, জনি খেয়াং, এবং ক্যাসামং মারমা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, স্থানীয় ম্রো আদিবাসীদের সাথে প্রতারণা করে, পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি তোয়াক্কা না করে, আঞ্চলিক পরিষদের অনুমোদন ব্যতীত জেলা পরিষদ কর্তৃক সিকদার গ্রুপ ও নিরাপত্তা বাহিনীকে চিম্বুক পাহাড়ে ফাইভ স্টার হোটেল নির্মাণ ও পর্যটন স্থাপনা নির্মাণের অনুমোদন দেয়া সম্পূর্ণ অবৈধ ও পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বিরোধী। তা কোনভাবেই মানা যায় না।

বক্তারা আরও বলেন, চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচতারা হোটেল নির্মিত হলে আদিবাসী ম্রোরা উচ্ছেদ হবে এবং সেখানকার পরিবেশও বিপর্যয়ের মুখে পড়বে। তাই বক্তারা অবিলম্বে চিম্বুক পাহাড়ে পাঁচ হোটেল ও এমিউজম্যান্ট পার্ক নির্মাণের উদ্যোগ বন্ধসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নের দাবি জানান।

ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধনটিতে প্রায় দুই শতাধিক নারী-পুরুষ অংশ নেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *