সিলেটে পাত্র সম্প্রদায় নিয়ে লেখা দুই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

বাংলাদেশের আদিবাসীদের অন্যতম পাত্র সম্প্রদায়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও ভাষা নিয়ে দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গত রোববার (১৮ অক্টোবর) সকালে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘পাত্র জাতির সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য’ ও ‘পাত্র ভাষা ও শব্দকোষ’ শিরোনামের বই দু’টির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের সিলেট রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্র।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পাত্র সম্প্রদায় কল্যাণ পরিষদ (পাসকপ) এর নির্বাহী প্রধান গৌরাঙ্গ পাত্র ও সঞ্চালনা করেন পাসকপ এর সমন্বয়কারী লাবনী স্বার্তী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাপা সিলেট এর সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম ক্বিম, মণিপুরি ভাষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি এ কে শেরাম, কাপেং ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক পল্লব চাকমা, উন্নয়ন সংস্থা এফআইভিডিবি’র জিয়াউর রহমান শিপার, লেখক ও গবেষক আব্দুল হাই আল হাদী প্রমুখ।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, ‘ভাষা যোগাযোগের একটি মাধ্যম। এর মধ্যে পারস্পরিক স্বার্থও জড়িয়ে আছে। পৃথিবীতে যেসব ভাষা বিলুপ্তপ্রায়, রাষ্ট্রীয় ভূমিকা ছাড়া সেসব ভাষা রক্ষণ করা খুবই কঠিন। যেকোনো ভাষার চর্চা করতে হবে। পাশাপাশি ওই গোষ্ঠীর ঐতিহ্য, ইতিহাস নিয়ে একটি সংগ্রহশালা তৈরি করতে হবে। সংঘবদ্ধ হয়ে পরিকল্পনামাফিক চললে বিলুপ্তপ্রায় ভাষা সহজেই সংরক্ষণ করা সম্ভব।’

বাংলাদেশের ৫০টি আদিবাসী জনগোষ্ঠী মধ্যে পাত্র সম্প্রদায় একটি। এই সম্প্রদায়ের নিজস্ব ভাষাকে বলা হয় ‘লালেং থার’। তাদের ভাষার কোনো বর্ণমালা না থাকায় ভাষাটি ধীরে ধীরে বিলুপ্তির পথে। একে সংরক্ষণের জন্য ইউরোপিয়ান কমিশন, ইন্টারন্যাশনাল লেবার অরগেনাইজেশন ও কাপেং ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় Cultural heritage and language preservation of indigenous peope in bangladesh প্রকল্পের আওতায় পাত্র জনগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও ভাষা নিয়ে প্রথমবারের মতো দু’টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। পাত্র সম্প্রদায় কল্যাণ পরিষদ (পাসকপ) এই বই দু’টি প্রকাশ করেছে।

সমাপনী বক্তব্যে পাত্র সম্প্রদায় কল্যাণ পরিষদ (পাসকপ) এর নির্বাহী প্রধান গৌরাঙ্গ পাত্র বলেন, ‘পাত্র সম্প্রদায়ের নিজস্ব ভাষার কোনো বর্ণমালা না থাকায় ধীরে ধীরে তা বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। এই ভাষাকে রক্ষা করার জন্য দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে বই দু’টি প্রকাশ করা হয়েছে। আজ বইগুলোর মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। দিনটি পাত্র সম্প্রদায়ের সকলের জন্য ঐতিহাসিক দিন। বই দু’টি এই সম্প্রদায়ের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য খুবই উপকারী হবে।’

অনুষ্ঠানের শুরুতে পাসকপ এর সমন্বয়কারী লাবনী স্বার্তী পাত্র সম্প্রদায়ের মানুষের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, ইতিহাস ও ভাষা নিয়ে একটি সচিত্র প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *