দিনাজপুরে আদিবাসী শিক্ষার্থী রুখিয়া রাউত হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বিচারের দাবী

রংপুর কারমাইকেল কলেজের আদিবাসী শিক্ষার্থী রুখিয়া রাউত (২৩) হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বিচারের দাবিতে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।উক্ত সমাবেশে বক্তারা আদিবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে পৃথক আদিবাসী মন্ত্রণালয় ও ভূমি কমিশন গঠনের দাবি জানান।

গতকাল শনিবার বেলা ১২ টায় শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে জাতীয় আদিবাসি পরিষদ ও পার্বতীপুর আদিবাসী সমাজ উন্নয়ন সমিতির উদ্যোগে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে দিনাজপুরের পার্বতীপুর, ফুলবাড়ী, চিরিরবন্দর ও রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার অর্ধসহশ্রাধিক আদিবাসী নারী-পুরুষ যোগদান করেন।
এছাড়া সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন, সমাজ উন্নয়ন সমিতির পার্বতীপুর শাখার সভাপতি বিমল মুর্মু, সাধারণ সম্পাদক এফ্রাইম টুডু, আদিবাসী নারী পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সহ-সভানেত্রী মিনতি মার্ডী ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদের তথ্য ও গরেষণা সম্পাদক মানিক সরেন প্রমুখ।

সমাবেশের প্রধান বক্তা জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন বলেন,- বদরগঞ্জের রামনাথপুর খোর্দ্দবাগবাড় গ্রামের দিনেশ রাউতের মেয়ে মেধাবী কলেজ ছাত্রী রুখিয়া রাউত হত্যকান্ড, হরিরামপুরের খাগড়াবন্দে শিশু ধর্ষণ, চন্ডিপুর বারোকোনায় আদিবাসীর ভূমি দখলে জড়িতদের দ্রুত বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।
এছাড়া, সমতল ভূমির আদিবাসীদের জন্য তিনি পৃথক মন্ত্রনালয় গঠন করে এর অধীনে আদিবাসীদের জন্য ভুমি কমিশন গঠনের মাধ্যমে আদিবাসীদের ভূমি সমস্যা সমাধানের আহবান জানান। নবাবগঞ্জ-পার্বতীপুর-ফুলবাড়ী এলাকার আদিবাসীদের প্রায় ৬ হাজার একর জমি বেদখল হয়েছে বলে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া-মিঠাপুকুর আঞ্চলিক মহাসড়কের পাঁচপুকুরিয়া এলাকায় পাশের জঙ্গল থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় রংপুর কারমাইকেল কলেজ অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্রী রুখিয়া রাউতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনার পর থেকে উত্তরাঞ্চলের আদিবাসী জনপদ ক্ষোভ ও প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *