কুড়মি, কুড়মালি ভাষা ও আন্তর্জাতিক ভাবনা

ইন্ডিজেনাস সোসাইটি এ্যান্ড কালচার এর উদ্যোগে কুড়মি, কুড়মালি ভাষা ও আন্তর্জাতিক ভাবনা শিরোনামে ফেসবুক লাইভ টক শো এর আয়োজন করা হয়।

আলোচকরা কুড়মি ও কুড়মালি বিষয়ে বিস্তর আলোচনা করেন। ‘কুড়ম’ শব্দ থেকে কুড়মি শব্দের উৎপত্তি। কুড়ম অর্থ কুড়াখুসা বা লাঙ্গল এক কথায় চাষাবাদ।

কুড়মিদের সবচেয়ে বেশী ব্যবহৃত পদবি হল মাহাতো। এদের মোট ৮১টি গোত্র রয়েছে। এদের ভাষার নাম কুড়মালি। গবেষকদের মতে প্রাচীন প্রাক বৈদিক যুগের মানুষ। হরপ্পা সভ্যতার কিছু কিছু নিদর্শন এখনোও তাদের কাছে বিদ্যমান। বাংলাদেশ সরকারের গেজেটে কুর্মি/বেদিয়া মাহাতো/মাহাতো হিসেবে পরিচিত। কুড়মি ও কুড়মালি ভাষার ইতিহাস ও ঐতিহ্য সমৃদ্ধ।

আলোচনায় যোগ দেন পশ্চিমবঙ্গ ভারত থেকে কবি ও সাহিত্যিক, কিরীটি মাহাত, তিনি তার রচিত বিশেষ গ্রন্থ ঝুমুর ও চর্যাপদ বিষয়ে আলোকপাত করেন। তিনি ঝুমুর ও চর্যাপদ এর মধ্যে সাদৃশ্যগুলো দেখান সেইসাথে তিনি কুড়মি ও কুড়মালি ভাষার প্রাচীন দিক গুলো সাবলীলভাবে তুলে ধরেন।

লেখক ও কুড়মালি লিপি আবিষ্কারক, জয়ন্ত কুমার মাহাত বলেন কুড়মালি ভাষার ধ্বণিতাত্ত্বিক ব্যাপার, কুড়মালি লিপি সহ কুড়মালি ভাষার অগ্রগতির বিষয় নিয়ে। আয়োজনে আরো ছিলেন ঝুমুর সম্রাজ্ঞী খ্যাত ঝুমুর শিল্পী ইন্দ্রনী মাহাত, পিদারে পলাশের বন পালাবো পালাবো মন, আওয়া দেখা ভাই মঅর ভূই কেইসেনে সুন্দর সহ কুড়মালি ভাষায় রবীন্দ্র সংগীত ও নজরুল সংগীত পরিবেশন করেন। আয়োজনে বাংলাদেশ ও ভারতে কুড়মি ও কুড়মালি ভাষা কিভাবে বিস্তৃত করা যায় সে বিষয়ে বিস্তর আলোচনা করা হয়।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বাংলাদেশের কুড়মালি ভাষার গবেষক ও লেখক উজ্জল মাহাতো।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *