খাগড়াছড়িতে জুম্ম নারীকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে মানবন্ধন

গত ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ বৃহষ্পতিবার খাগড়াছড়ি সদরের বলপিয়ে আদামে এক মানসিক প্রতিবন্ধী জুম্ম নারীকে ৯ জন সেটলার বাঙালি কর্তৃক গণ ধর্ষণের ঘটনায় বিচার দাবী করে রাঙ্গামাটিতে মানবান্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ (২৬ সেপ্টেম্বর) সম্মিলিত ছাত্র ও সামাজিক সংগঠন এর ব্যানারে আয়োজিত উক্ত মানববন্ধনটি রাঙ্গামাটি শহরের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মানববন্ধনে বিভিন্ন ছাত্র ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ বাদেও নাগরিক সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রক্তদাতা সংগঠন উন্মেষ এর সভাপতি বিটন চাকমা, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য ও শিক্ষাবিদ নিরূপা দেওয়ান, টিআইবি’র ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য এডভোকেট সুস্মিতা চাকমা, বাংলাদেশ তঞ্চঙ্গ্যা স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার ফোরাম রাঙ্গামাটির সাধারণ সম্পাদক জগদীশ তঞ্চঙ্গ্যা সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে জুম্ম নারীদের উপর সংগঠিত মানবাধিকার লংঘনের ঘটনাগুলোর একটিরও কোনো বিচার হয়নি। দীর্ঘদিনের বিচার হীনতার সংস্কৃতি চলমান থাকার কারণে বারবার অপরাধীরা এসব অপরাধ সংগঠনের ক্ষেত্রে উৎসাহিত হচ্ছে। যার কারণে এই ধরণের ধর্ষণের ঘটনা একের পর এক ঘটেই চলেছে বলেও বক্তারা অভিযোগ করেন। বক্তারা অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান।

উল্লেখ্য গত ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ বৃহষ্পতিবার আনুমানিক ভোর আড়াইটার দিকে খাগড়াছড়ি সদরে ১ নং গোলাবাড়ি ইউনিয়ন সংলগ্ন বলপিয়ে আদাম নামক গ্রামে নিজ বাড়িতে ৯ জন সেটেলার বাঙালী কর্তৃক মানসিক প্রতিবন্ধী এক জুম্ম নারীকে গণধর্ষণ এবং বাড়ী লুটপাটের জঘন্য ঘটনা ঘটায়।গত বৃহষ্পতিবার আনুমানিক আড়াইটার সময় ৯ জনের একদল সেটেলার দা-ছুরি সহ দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের বাড়ির দরজা ভেঙে প্রবেশ করে। বাড়িতে ঢুকতে প্রথমে মা বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে ভুক্তিভোগী জুম্ম নারী, মাকে সহ বুড়ো বাবাকে দড়ি দিয়ে বাধে। এরপর মা-বাবাকে আলাদা একটি রুমে দরজা বন্ধ করে রাখে। পরে ওই জুম্ম নারীটিকে আরেকটি রুমে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণ করে।দুর্বত্তরা যাওয়ার আগে বাড়ি থেকে নগদ ৮,০০০/- ( আট হাজার) টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায়। যা প্রায় দেড় লক্ষ টাকার সমান।

তবে আজ চট্টগ্রাম থেকে উক্ত ৯ জনের মধ্যে ৭ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলে জানা গেছে এবং গ্রেফতারকৃতরা নিজ মুখে ঘটনা সংগঠনের সত্যতা স্বীকার করেছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *