বনবিভাগ কর্তৃক মধুপুরে গারো আদিবাসী কৃষকের কলা বাগান ধ্বংস করে দেওয়ার ঘটনায় কাপেং ফাউন্ডেশনের নিন্দা

টাঙ্গাইলের মধুপুর শালবনে বনবিভাগ কর্তৃক পেগামারী গ্রামে গারো আদিবাসী কৃষক বাসন্তী রেমা ও গেটিস যেত্রার লক্ষ টাকার আবাদী ফসল কলা বাগান জোরপূর্বকভাবে ধ্বংস করে দেওয়ার ঘটনায় মানবাধিকার সংগঠন কাপেং ফাউন্ডেশন নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে। আজ বুধবার সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক পল্লব চাকমা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বার্তায় এ নিন্দা জানানো হয়্।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ সকাল পৌনে দশটায় বাসন্তী রেমা ও গেটিস যেত্রা যুগ যুগ ধরে বংশপরম্পরায় বসবাস ও চাষাবাদ করা উক্ত কলাবাগান বনবিভাগ কর্তৃক ধ্বংস করে দেওয়া হয়। স্থানীয় আদিবাসীসহ ভিক্টিমদের অভিযোগ, বনবিভাগের সহকারী কমিশনার জামাল হোসেন তালুকদার, রেঞ্জার আব্দুল আহাদ ও স্থানীয় জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে এ জগন্যতম ঘটনাটি ঘটানো হয়। কোনরকম মৌখিক বা লিখিত নোটিশ ছাড়া বনবিভাগ কর্তৃক এ কান্ডজ্ঞানহীন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এতে বর্তমানে করোনাকালীন কঠিন সময়ে এই পরিবারের উপার্জনের একমাত্র উৎস ধ্বংস হয়ে পড়ে যায়। এটা এক চরম মানবাধিকার লংঘন। কাপেং ফাউন্ডেশন এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ দোষীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত চাষিকে যথাযথ ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করার পাশাপাশি ভবিষ্যতে আদিবাসীদের বিরুদ্ধে এরকম ন্যাক্কারজনক ঘটনা বন্ধ করতে প্রশাসন দ্রæত হস্তক্ষেপও কামনা করা হয়েছে।
সংগঠনটি এ ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয়দের সকল আন্দোলনে নিজেদের সংহতি ব্যক্ত করে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *