শালবন থেকে পীরেনের আত্মা বলছি….. টনি চিরান

মৌন মিছিলের সেই উত্তাল জনস্রোতে
তোমাদের রাইফেলের রক্তচোষা বুলেট
আমার বুক চিড়ে বেরিয়ে গেলেও
লালচে মাটির আবিমার শালবনে
ছায়া হয়ে আজো বেঁচে আছি আমি
যোগ্য উত্তরসূরীদের তেজদীপ্ততায়।

ভেবেছিলে ওই বুলেটের আঘাতে
আমার কন্ঠ রোধ হবে;
হয়েছে হয়তো তবে ক্ষনিকের জন্য,
দেহ থেকে আত্মা আলাদা করেছো বটে
কিন্তু আত্মার যে মৃত্যু নেই, আত্মা যে চিরঞ্জীব,
সে কথা তোমাদের জানা ছিলোনা বোধহয়।

সেদিন ঝাঁঝালো বারুদের গন্ধে
শালবনের নিঃশ্বাস ভারী হয়েছিলো
নিথর দেহ থেকে অঝরে রক্ত ঝরছিলো
সহযোদ্ধাদের আর্তচিৎকারে
শালবনের প্রাণ-প্রকৃতিরাও কেঁদেছিলো।

মানুষ এতটাও নির্দয় হয়!
তৃষ্ণার্ত মানুষের গোঙানির শব্দ পেয়ে
ভারী বুট দিয়ে বুক বরাবর আঘাত করেছিলে,
হায়েনার মত টেনেহিঁচড়ে ক্ষতবিক্ষত দেহটা গুম করতে চেয়েছিলে,
কি-ই বা দোষ ছিলো এই বনবাসী মানুষের;
শালবনে কথিত উন্নয়নের নামে
দুর্ভেদ্য প্রাচীর তোলার বিরুদ্ধে না হয়
শান্তিপূর্ণ মৌন মিছিলই করেছিলো
তারই জন্য বুলেটের আঘাত!

রক্তাক্ত সেই বুলেট শুধু আমার বুক চিড়ে বেরিয়ে যাইনি,
বুলেট বিদ্ধ হয়েছিলো সম্ভাবনাময় আরো এক তরুণ প্রাণ;
উৎপল নকরেক, এক অনুপ্রেরণার নাম
মাটিতে লুটিয়ে পড়লেও
দুঃসহ যন্ত্রণা নিয়ে আজো বেঁচে আছে
হুইলচেয়ারটা চিরসঙ্গী করে
অনুভূতিহীন এক জীবন্ত লাশ হয়ে।

রচনাকালঃ ১৫/০৯/২০ইং

টনি ম্যাথিউ চিরান; সাবেক সহ সভাপতি, বাংলাদেশ আদিবাসী ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *