নবাবগঞ্জে আদিবাসী কলেজ ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় ধর্ষক গ্রেফতার

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের প্রলোভনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে আদিবাসী এক কলেজ ছাত্রী(২০) কে ধর্ষণের অভিযোগে নবাবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (০৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে ধর্ষণের শিকার ওই কলেজ ছাত্রী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। পুলিশ ওই মামলায় তাপস চন্দ্র রায়(২০) নামে ওই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের ডোমপাড়া গ্রামের ও দাউদপুর মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ওই কলেজ ছাত্রীকে কলেজে যাতায়াতের সময় একই উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের আজমপুর কাজিপাড়া গ্রামের পতন চন্দ্র রায়ের ছেলে তাপস চন্দ্র রায় প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিত। তার ওই প্রস্তাবে কলেজ ছাত্রী রাজী না হলে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখায়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এরপর থেকে তাকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে।

সর্ব শেষ গত মঙ্গলবার (০১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে তাকে তার গ্রামের একটি নির্মানাধীন বাড়ীতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণকালে স্থানীয়রা দেখে ফেললে ধর্ষক তাপস চন্দ্র দৌঁড়ে পলাতে সক্ষম হয়।

এ ঘটনায় থানায় মামলা করলে পুলিশ গত শুক্রবার (০৪ সেপ্টেম্বর) ধর্ষক তাপস চন্দ্র রায়কে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করেছে। ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রীকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *