বান্দরবানের লামায় ৬ জন দুর্বৃত্ত কর্তৃক ত্রিপুরা নারীকে গণধর্ষণ

বান্দরবানের লামায় প্রেমিকের সহায়তায় প্রেমিকসহ ৬ জন ব্যক্তি কর্তৃক এক বিধবা ত্রিপুরা নারীকে (২৫ বছর) গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুধু তা নয়, এসময় ধর্ষনের শিকার নারী থেকে নগত ৩০ হাজার টাকাও কৌশলে ছিনিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা।

গতকাল ৩০ আগস্ট ২০২০ রবিবার রাত প্রায় ১:০০ টার দিকে উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের পূর্বচাম্বী এলাকার জনৈক ক্লিপটন গ্রুপের বাগানের পাশে এই ঘটনা ঘটে। মেয়েটির বাড়ি বান্দরবানের মিলনছড়ি এলাকায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে যে, বেশ কয়েকদিন আগে মোবাইলের মাধ্যমে ওই নারীর সাথে নুরুল হুদার পরিচয় হয়। পরিচয়ের পর উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক তৈরী হয়। ঘটনার শিকার ঐ নারীকে বিয়ের আশ্বাসও দেয় নুরুল হুদা।
পূর্বচাম্বী ডিগ্রিখোলা এলাকার জনৈক দুলা মিয়ার স্ত্রী রাবেয়া বেগম বলেন, মেয়েটি ধর্ষণের পরে রাত ৩টার দিকে হেঁটে ডিগ্রিখোলা এলাকার আসলে স্থানীয় লোকজনের সাথে দেখা হলে সে তাদের বিষয়টি বলে। পরে স্থানীয় লোকজন রাতের জন্য মেয়েটিকে আমার নিকট হেফাজতে রাখে। সকালে লামা থানা পুলিশ এসে মেয়েটিকে তাদের হেফাজতে নেয়।

তিনি আরও বলেন, মেয়েটি আমাকে জানায় পার্শ্ববর্তী সরই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের পুইট্টা পাড়ার মৃত ইসহাক মৌলভী প্রকাশ দেয়াল মৌলভীর ছেলে নুরুল হুদা (২৭) তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে আসে। পরে ক্লিপটন গ্রুপের বাগানের জঙ্গলের ভিতরে নুরুল হুদা ও তার সাথে থাকা অজ্ঞাত আরও ৫ জন লোক মিলে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে এবং তার কাছে থাকা ৩০,০০০ টাকা নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নির্যাতিত ত্রিপুরা নারী বাদী হয়ে আজ সোমবার সকালে লামা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ১৩.৩১/০৮/২০২০।

আজ ৩১ আগস্ট সোমবার সকালে মেয়েটিকে পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, আসামীদের গ্রেফতার করতে আমাদের চেষ্টা চলছে। মেয়েটি একাধিক ব্যক্তির কথা বলছে। ধারণা করা হচ্ছে, এটি গণধর্ষণের মত একটি ঘটনা। এদিকে আজিজনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ঘটনাস্থলটি আমার ইউনিয়নে পড়েছে তবে ধর্ষকরা সবাই সরই ইউনিয়নের বাসিন্দা। ঘটনাটি মর্মান্তিক। মেয়েটি যেন ন্যায় বিচার পায় সে দাবি করছি।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *