আজ ফুলবাড়ী দিবসঃ ১৪ বছরেও বাস্তবায়ন হয়নি ৬ দফা চুক্তি

আজ ২৬ আগস্ট। ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডির ১৪তম বার্ষিকী। ২০০৬ সালের এই দিনে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা খনি প্রকল্প বাতিল, জাতীয় সম্পদ রক্ষা এবং এশিয়া এনার্জিকে ফুলবাড়ী থেকে প্রত্যাহারসহ ৬ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করতে গিয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিন জন এবং আহত হন অনেকে। সেই আন্দোলনের পর থেকে এই দিনটিকে ‘ফুলবাড়ী দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়।

২০০৬ সালের এই দিনে ৬ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করেন ফুলবাড়ীর সাধারণ মানুষ। বাঙ্গালীদের পাশাপাশি স্থানীয় আদিবাসী জনগণও এই আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ত ছিল। উন্মুক্ত পদ্ধতিতে খনি বাস্তবায়নের প্রস্তাবকারী বহুজাতিক কোম্পানি এশিয়া এনার্জির ফুলবাড়ীর অফিস ঘেরাও কর্মসূচি পালন করতে গেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মিছিলের ওপর টিয়ার শেল ও গুলিবর্ষণ করে। এতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলামসহ আমিন ও সালেকিন নামে তিন জন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন মিছিলে অংশ নেওয়া অনেকেই। এদের মধ্যে বাবলু রায় নামে একজন চিরতরে পঙ্গুত্ব বরণ করেন। এখনও অনেকে বয়ে বেড়াচ্ছেন গুলির ক্ষত।

সেদিনের ঘটনার পর ফুলবাড়ী, পার্বতীপুর, বিরামপুরসহ বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে। টানা চার দিনের গণআন্দোলনের মুখে ৩০ আগস্ট তৎকালীন সরকার ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে ৬ দফা শর্তে সমঝোতা চুক্তি করে, যা ‘ফুলবাড়ী ৬ দফা চুক্তি’ বলে পরিচিত। এরপর থেকে এই দিনটিকে ফুলবাড়ীবাসী ও আন্দোলনকারী সংগঠন তেল-গ্যাস-খনিজসম্পদ ও বিদুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ‘ফুলবাড়ী দিবস’ হিসেবে পালন করে।

তবে ফুলবাড়ী গণআন্দোলনের ১৪ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও বাস্তবায়ন হয়নি ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে সম্পাদিত ৬ দফা চুক্তি। উল্টো আন্দোলনকারী সংগঠনের শীর্ষ নেতাদের মাথার ওপর চেপে বসেছে এশিয়া এনার্জির দায়ের করা একাধিক মামলা।

অন্যদিকে শুধু দিবস পালনেই সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে খনি বাস্তবায়নবিরোধী আন্দোলন।

জাতীয় তেল গ্যাস খনিজসম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা কমিটি, ফুলবাড়ী শাখার আহ্বায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল জানান, আগামী ডিসেম্বরেও মধ্যে ফুলবাড়ীবাসীর দাবি সম্পন্ন করা না হলে আবারো আন্দোলনের মধ্যদিয়ে তা আদায় করে নেয়া হবে হবে।

ফুলবাড়ীবাসীর বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র করেছিল তাদের চিহ্নিত করে শাস্তির আওতায় আনার দাবী জানান ফুলবাড়ী আন্দোলনের অন্যতম নেতা ও ফুলবাড়ীর পৌর মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক।

উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনের বিরোধী ফুলবাড়ীবাসী আজও প্রতিরোধের চেতনায় উদ্দীপ্ত হয়ে পালন করছে ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস।

করোনার কারণে স্বাস্থ্য বিধি মেনে সীমিত পরিসরে পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকালে কালো পতাকা উত্তোলন, নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা সভা।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *