গোদাগাড়ীতে আদিবাসী নারী ধর্ষণের চেষ্টা

রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার গোগ্রাম ইউনিয়নের ইটাহারি গ্রামে আদিবাসী নারী ধর্ষণের চেষ্টা ও অরেকজন আদিবাসী নারী ও পুরুষকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করার ঘটনা ঘটেছে। গত ৮ আগস্ট ২০২০ দিবাগত রাতে আনুমানিক ১০.৩০টায় একই গ্রামের জহিরুল ইসলাম (৪৫) আদিবাসী নারীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় আদিবাসী নারীটি চিৎকার করলে গ্রামের লোকজন জহিরুল ইসলাম কে ধরে ফেলে এবং আটকে রাখে। পরে জহিরুল ইসলামের লোকজন তাকে আদিবাসীদের কাছ থেকে জোরপূর্বক ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। উল্লেখ্য, জহিরুল ইসলাম ঐ আদিবাসী নারীকে কিছুদিন যাবত শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করতো।

এই ঘটনায় ৯ আগষ্ট ২০২০ তারিখে গোদাগাড়ী থানায় ঐ আদিবাসী নারী একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এদিন এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জহিরের ছেলে জাব্বারের নেতৃত্বে ১০-১২ জন সন্ত্রাসী দল ঐ আদিবাসী নারীর দেবর মতিলাল মুরারী (২২) এবং তার স্ত্রী রীতা রানী মুরারীকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে যখম করে। তারা বর্তমানে প্রেমতলি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন আছে। এখনো পর্যন্ত পুলিশ এ ঘটনার কোন আসামীকে গ্রেপ্তার করে নি।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *