কল্পনা চাকমা অপহরণে জড়িতদের দ্রুত ও যথাযথ শাস্তি চায় বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক

সতেজ চাকমা: ২৪ বছর আগে নিজ বাড়ি থেকে অপহরণের শিকার হওয়া পাহাড়ের নারী অধিকারকর্মী কল্পনা চাকমা’র অপহরণের সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবী করেছে বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক।

কল্পনা চাকমা’র অপহরণের ২৪ বছর উপলক্ষ্যে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সংগঠনটি এ দাবী করেছে। কল্পনা চাকমা’র অপহরণের ঘটনার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ দিয়ে বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্কের স্বমন্বয়ক ফাল্গুনী ত্রিপুরা স্বাক্ষরিত এই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- “১৯৯৬ সালের ১২ জুন দিবাগত রাতে নিরাপত্তা বাহিনীর কতিপয় সদস্য কর্তৃক নিজ বাড়ি থেকে অপহরণের শিকার হন কল্পনা চাকমা। এরকম একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনায় যাবতীয় তথ্য-প্রমাণাদি থাকা সত্বেও এবং দোষীদের চিহ্নিত করা গেলেও শুধু তদন্তের নামে ২৪টি বছর কালক্ষেপন করা সত্যিই দুঃখজনক। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু ও যথাযথ বিচার ও শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।”

এছাড়া উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয় যে, গণতান্ত্রিক একটি দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি দীর্ঘদিন চলতে পারে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বার্থে ও দেশকে কালিমামুক্ত করতে অচিরেই এ ঘটনার বিচার করা দরকার।

উক্ত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো উল্লেখ করা হয় যে, এবছর নানা সংগঠন এ ঘটনার ভার্চুয়াল প্রতিবাদ করেছে এবং অনলাইনে আলোচনা করেছে।
ফেসবুক প্রফাইলে কল্পনা চাকমার ছবি আপলোড দিয়ে প্রতিবাদী স্ট্যাটাস দিয়ে ব্যক্তি বিশেষে অপহরণের বিচার চেয়েছে। একই দাবিতে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম আইপিনিউজ এর আয়োজনে সংস্কৃতি কর্মী, আদিবাসী শিল্পী ও ব্যান্ড দলগুলো অনলাইনে প্রতিবাদী গানের আয়োজন করেছে এবং কল্পনা অপহরণের বিচার চেয়েছে। হিল উইমেন্স ফেডারেশন ও পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ নানাভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে এর বিচার চেয়েছে। তারা নিজেদের প্রফাইল ও ফেসবুক গ্রুপে প্রতিবাদী কবিতা আবৃতি করেছে।

নানা অজুহাতে ও তদন্তের নামে আর কালবিলম্ব না করে দোষীদের দ্রুত ও যথাযথ শাস্তিও চাই বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *