বিপ্লবী লারমাকে শ্রদ্ধা নিবেদনঃ রাঙ্গামাটিতে প্রভাত ফেরী

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি
পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসীদের পথিকৃত সাবেক সংসদ সদস্য মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার ৩৩ তম মৃত্যু বার্ষিকী ১০ নভেম্বর। এ দিনটি শোক দিবস উপলক্ষে পুরো পার্বত্য চট্টগ্রাম জুড়ে পালন করেছে আদিবাসী জনগণ। এমএন লারমার স্মৃতি স্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ, প্রভাত ফেরী, আলোচনা সভা করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টায় রাঙ্গামাটি শহরের রাজবাড়ি এলাকার শিল্পকলা একাডেমী থেকে প্রভাত ফেরী শুরু হয়। প্রভাত ফেরীটি বনরূপা পেট্রোল পাম্প ঘুরে এসে শিল্পকলা এসে শেষ হয়।
এরপর এমএন লারমার স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি ও আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় সন্তু লারমা। এরপর একে একে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ এমএন লারমার স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।
এমএন লারমা ১৯৮৩ সনে এই দিনে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত এলাকা পানছড়ির গহীন অরণ্যে বিপদগামী কিছু সহকর্মীর গুলিতে মৃত্যু বরণ করেন। এমএন লারমা ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির প্রতিষ্ঠাতা। সব রাজনৈতিক দলের কাছে এমএন লারমা ছিলেন একজন আদর্শ ব্যাক্তি। তিনি ১৯৭০ সালে পূর্ব পাকিস্তানের প্রাদেশিক সরকারের আমমে এবং ১৯৭৩ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম ১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি সংসদে সবার অধিকারের কথা বলেন বলেছিলেন। তিনি সকল নিপীড়িত জতিসমূহ ও শ্রমজীবী মানুষের মাঝে অমর হয়ে আছেন।

বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *